Date : 2023-01-28

৭ টি এমন খাবার আছে যেটি ভারতীয়দের কাছে বেশ জনপ্রিয়।তবে সেই সব খাবারের উৎপত্তি মোটেই ভারতীয় নয়।

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক:- ভারত এক বিপুল জনসংখ্যার দেশ। এখানে সব ধর্মের মানুষ এর বাস। প্রত্যেকেরই খাওয়া-দাওয়ার ধরণ আলাদা। তাই খাবারের মধ্যে রয়েছে বৈচিত্র। ভারতীয়রা খেতে যেমন ভালোবাসেন তেমন চুসিও। সারা ভারতে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ধরণের রান্নার পদ রয়েছে। এমন অনেক জনপ্রিয় খাবার খেয়ে থাকি যার আবিষ্কার ভারতে হয়নি। আসুন দেখে নেওয়া যাক এরকমই কয়েকটি খাবার।

১. বিরিয়ানি:- তত্ত্ব বলছে বিরিয়ানি ভারতীয় উপমহাদেশের মুসলিমদের একটি মিশ্র চালের খাবার। তবে ইতিহাসবিদ দের মতে, বিরিয়ানি মুঘল বংশোদ্ভূত, আরব ব্যবসায়ীদের দ্বারা ভারতীয় উপমহাদেশে আনা পিলাফের (পোলাও) জাত থেকে উদ্ভূত। কিন্তু অনেকের মতে যে এটার পারস্যে উত্‍পত্তি হয়েছিল। বিরিয়ানির উৎপত্তি নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মত পাওয়া গেছে।

২.সিঙারা:- সিঙারা ভারতের একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় খাবার, প্রায় ৯০ শতাংশ ভারতীয় এটা পছন্দ করেন। কিন্তু দুঃখের বিষয় এটি ভারতে প্রথম তৈরি হয়নি। সিঙারার প্রথম প্রচলন হয় ত্রয়োদশ অথবা চতুর্দশ শতকে মধ্য এশীয় ব্যবসায়ীদের দ্বারা।

৩. চা:- চা মৌসুমী অঞ্চলের পার্বত্য ও উচ্চভূমির ফসল। একপ্রকার চিরহরিৎ বৃক্ষের পাতা শুকিয়ে চা প্রস্তুত করা হয়। চীন দেশই চায়ের আদি জন্মভূমি। বর্তমানে এটি বিশ্বের সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য পানীয়রূপে গণ্য করা হয়। যেটা জানা যায় ১৬০০ সালের শেষের দিকে ভারতেও চা চাষ করা হয়েছিল। চা ভারতীয়দের মধ্যে অনেক বিখ্যাত।

৪. জিলিপি-: জিলাপির সর্বাধিক পুরনো লিখিত বর্ণনা পাওয়া যায় মুহম্মদ বিন হাসান আল-বোগদাদীর লিখিত ১৩শ শতাব্দীর রান্নার বইতে, যদিও মিসরের ইহুদিরা এর আগেই খাবারটি আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছিল। ইরানে এই মিষ্টান্ন জেলেবিয়া নামে পরিচিত, যা সাধারণত রমযান মাসে গরীব-মিসকিনদের মাঝে বিতরণ করা হয়। ভারতীয় উপমহাদেশে মুসলমানরা জিলাপি নিয়ে আসে।

৫. নান :- নান এক ধরনের ওভেনে তৈরি করা রুটি। যা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর একটি জনপ্রিয় খাদ্য। মূলত পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলে সমান রুটির সাধারণ নাম হল নান। পশ্চিম, মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়ায় নান উত্‍পন্ন হয় মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাব থেকে।

৬. শাওয়ারমা -: নন-ভেজ প্রেমী মানুষদের অন্যতম প্রিয় খাবার, এখন স্ট্রিট ফুডে পরিণত হয়েছে। এটি মিশর, ইরাক, মধ্যপ্রাচ্যের জনপ্রিয় খাবার। উনবিংশ শতাব্দীতে ওটোম্যান সাম্রাজ্যে (বর্তমানে বুরসা, তুর্কি) হয়। পাতলা রুটির মধ্যে মাংসের টুকরো, শশা, টমেটো, পেঁয়াজ, পাতিলেবু দিয়ে মুড়িয়ে দেওয়া হয়।

৭. রাজমা-চাউল-: রাজমা-চাউল
উত্তর ভারতে প্রসিদ্ধ খাবার। রাজমা-চাউল খাবারটা মেক্সিকো থেকে গুয়েতমালা হয়ে ভারতে আসে। লাল রঙের কিডনির মতো দেখতে বিনস। এটি মূলত উত্তর ভারত এবং নেপালে সবচেয়ে বেশি সবচেয়ে জনপ্রিয়।