Date : 2024-04-18

মাধ্যমিকের আগে কর্মবিরতি কতটা প্রভাব ফেলবে প্রস্তুতিতে

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : ২৩ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে মাধ্যমিক পরীক্ষা। বকেয়া ডিএ মেটানোর দাবিতে ২০ ও ২১ ফেব্রুয়ারি কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন সরকারি কর্মচারীরা। এই কর্মবিরতিতে সামিল হবার কথা জানিয়েছেন শিক্ষক শিক্ষিকারাও। এই কর্মবিরতি কতটা প্রভাব ফেলবে পরীক্ষার প্রস্তুতিতে?

বকেয়া ডিএ মেটানোর দাবিতে শহিদ মিনারে অবস্থান ও অনশনে সামিল সরকারি কর্মচারিরা। রাজ্য বাজেটে তিন শতাংশ বকেয়া ডিএ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু তাতে খুশি নন আন্দোলনকারীরা। তাই আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়াতে ২০ ও ২১ ফেব্রুয়ারি দুদিনের কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন সরকারি কর্মচারীরা। ২৩ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে চলেছে মাধ্যমিক পরীক্ষা। এবার প্রায় ৭ লক্ষ পরীক্ষার্থী মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসবে। রাজ্যের ২৮৬৭ কেন্দ্রে হবে পরীক্ষা। পরীক্ষা সুষ্ঠু ভাবে পরিচালনা করতে বদ্ধ পরিকর পর্ষদ। কিন্তু পরীক্ষার শুরুর দু দিন আগে কর্মবিরতি প্রভাব ফেলতে পারে কি পরীক্ষার প্রস্তুতিতে। কি মত শিক্ষক শিক্ষিকাদের? “বৃহস্পতিবার থেকে শুরু মাধ্যমিক । এই কর্মবিরতির জন্য যেখানে সেন্টার বা ভ্যেনু সেখানে শিক্ষকরা যদি না আসেন তাহলে শেষ মূহুর্তের প্রস্তুতিতে সমস্যার হতে পারে। পরীক্ষার্থীদের বসার ব্যবস্থা, শেষ মূহুর্তের কিছু নোটিশ থাকে। সেগুলোতে একটু সমস্যা হতে পারে। ওদিকে দেখলেও কিছু ন্যায্য দাবি। বৃহত্তর স্বার্থ। দুদিকেই দেখতে হবে। একদিকে ডিএ আর অন্যদিকে পড়ুয়াদের ভবিষ্যতের বিষয়। মোরাল সাপোর্টটা ডিএ র দিকে থাকলেও মাধ্যমিকের জন্য কাজ করবেন শিক্ষক শিক্ষিকারা। শিক্ষকরা নিজেরাই স্কুলে আসবেন বলে জানিয়েছেন।” টাকি বয়েজ স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা স্বগতা বসাক। অন্যদিকে বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাবন্ধু সমিতির সাধারণ সম্পাদক স্বপন মণ্ডলের মতে, ” বঞ্চনাটা এমন জায়গায় গিয়ে পৌঁছেছে লাগাম ছাড়া। সরকারেরও তার কর্মচারীদের উপর দায়বদ্ধতা থাকে। কর্মচারীদের বঞ্চিত করতে করতে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। কিন্তু মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের কথা ভেবে বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাবন্ধু সমিতি সহ একাধিক সংগঠন দুদিন নয়। একদিনের কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে।”

যদিও ইতিমধ্যে সরকারি কর্মচারীদের এই কর্মসূচি নিয়ে বেশ কড়া নবান্ন। নেওয়া হয়েছে কড়া পদক্ষেপ। ডি এ ইস্যুতে কাজে না এলে সংশ্লিষ্ট কর্মচারির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে নবান্ন। নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া ওই দুদিন কাজে যোগ না দিলে কর্মজীবন থেকে একদিন ছেদ পড়তে পারে বলে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে নবান্ন। যদিও নিজেদের সিদ্ধান্ত থেকে সরতে নারাজ সরকারি কর্মচারীরা। সম্পন্ন বকেয়া ডিএ না মেটা পর্যন্ত চলবে আন্দোলন বলে মত আন্দোলনকারীদের।