Date : 2024-06-26

নিয়োগ দুর্ণীতির মাঝেই শিক্ষায় জাতীয় স্বীকৃতি বাংলার। সৌজন্যে বাঁকুড়া জেলা।

সঞ্জু সুর , সাংবাদিক:- ‘সমগ্র শিক্ষা মিশন’-এর আওতায় ২০২২ সালের জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার দৌড়ে রাজস্থান, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে এক আসনে পশ্চিমবঙ্গ। বলা ভালো, পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়া জেলা। কিন্তু তার আগে সমগ্র বিষয়টি নিয়ে একটি রাইট আপ পাঠাতে হবে ২৮ মার্চের মধ্যে।

২০২২ সালের প্রধানমন্ত্রী পুরস্কার কে কেন্দ্র করে একটি কফি টেবিল বুক প্রকাশ করা হবে। সেই টেবিল বুকেই প্রকাশিত হতে চলেছে আমাদের রাজ্যের বাঁকুড়া জেলায় শিক্ষা ব্যবস্থায় সংস্কারের কি কি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা। এই বিষয়ে সারাদেশের প্রতিটি জেলাকে নিয়ে একটি প্রতিযোগিতা হয়েছিল। শিক্ষায় সংস্কার, অভিনবত্ব বা নতুনত্বের বিষয়ে জেলাগুলি কি কি করেছে, তার সচিত্র প্রমাণ জমা দিতে হয়েছিল।

সেসব খতিয়ে দেখার পর শর্ট লিস্টেড করা হয়। এরপর যে যে জেলাগুলি শর্ট লিস্টেড হয়েছিল তাদের জেলাশাসকদের একটি ইন্টারভিউ প্রসেসের মধ্য দিয়ে যেতে হয় যে ইন্টারভিউ নেয় একটি এমপাওয়ার্ড কমিটি যার মাথায় ছিলেন ক্যাবিনেট সেক্রেটারি। শর্ট লিস্টেড হওয়া জেলাগুলিকে ২৮ মার্চের মধ্যে তাদের নিজ নিজ জেলায় কি কি কাজ করা হয়েছে তা সঠিকভাবে রাইট আপ আকারে পাঠাতে বলা হয়েছে। তারসঙ্গে পাঠাতে বলা হয়েছে প্রয়োজনীয় ছবিও।

শিক্ষা ক্ষেত্রে নতুনত্ব নিয়ে আসা, শিশুদের স্কুলমুখী করা, ক্লাসরুমকে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য আকর্ষনীয় করে তোলার ক্ষেত্রে নতুন কোন চিন্তা ভাবনা প্রণয়ন করা, এই বিষয়গুলোর উপরেই মূলতঃ পুরস্কার নির্ধারন করা হয়। সারাদেশের আরও চারটি রাজ্যের সঙ্গে আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ এই সম্মান পেতে চলেছে। তবে এই সম্মান যেহেতু দেওয়া হয় মূলত জেলাগুলোকে। সেই হিসাবে আমাদের রাজ্যের বাঁকুড়া জেলা সংক্ষিপ্ত তালিকা ভুক্ত হয়েছে। বাঁকুড়া ছাড়া রাজস্থানের ঝালোয়ার, গুজরাটের মেহেসানা, উত্তরপ্রদেশের চিত্রকূট সহ কেরল ও জম্মু-কাশ্মীরের জেলাও রয়েছে।