Date : 2024-04-18

ছাতনার হেরিটেজ মন্দিরের সংস্কারে হাত জেলা প্রশাসনের। আশা পর্যটনের বিকাশে সহায়ক হবে এই মন্দির

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক ঃ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি একাধিক হেরিটেজ মন্দির রয়েছে বাঁকুড়া জেলায়। তেমনই একটি হল বাঁকুড়ার ছাতনা ব্লকের কামিনবেদের কাশিপুর রাজার মন্দির। ঐতিহাসিক এই মন্দিরের সংস্কারের জন্য জেলাশাসকের তহবিল থেকে বরাদ্দ করা হয়েছে প্রায় ছয় লক্ষ চৌদ্দ হাজার টাকা। জেলা প্রশাসনের আশা এক মাসের মধ্যে এই সংস্কারের কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

বাঁকুড়া জেলা মানেই একদিকে রুক্ষ ভূমি, অন্যদিকে অসম্ভব সুন্দর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। আর রয়েছে অসংখ্য মন্দির। এই জেলার বিষ্ণুপুর মন্দির শহর হিসাবেই পরিচিত। বিষ্ণুপুরের টেরাকোটা শৈলির মন্দির ও শিল্কের শাড়ি জগৎ বিখ্যাত। তবে শুধু বিষ্ণুপুর নয়, বাঁকুড়া জেলা জুড়েই বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে রয়েছে অসংখ্য মন্দির। তেমনই একটি মন্দির হলো এই জেলার ছাতনা ব্লকের আরা গ্রাম পঞ্চায়েতের কামিনবেদ গ্রামের মন্দির। সময়ের কামড়ে এই মুহূর্তে মন্দিরটির ভগ্নদশা অবস্থা। জেলাপ্রশাসনের কাছে সেই খবর পৌঁছানোর পর ছাতনা সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিককে বিষয়টি খোঁজ খবর নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেইমতো বিডিও সরেজমিনে ঘুরে দেখে রিপোর্ট জমা দেন জেলাশাসকের দফতরে। রিপোর্টে বিডিও জানান, ঐতিহাসিক এই মন্দিরটিতে এখনো সাধারণ মানুষ পুজো দিতে আসেন। কিন্তু খুবই জীর্ণ দশা মন্দিরটির। সংস্কারের প্রয়োজন রয়েছে। সেই সঙ্গে একটি এস্টিমেট ও পাঠানো হয়। সবকিছু খতিয়ে দেখে মন্দির সংস্কারের জন্য ৬ লক্ষ ১৪ হাজার ৭৮৩ টাকা বরাদ্দ করেন জেলাশাসক কে রাধিকা আইয়ার। জেলা প্রশাসনের আশা মন্দিরটি সংস্কার হয়ে গেলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর ছাতনা ব্লক পর্যটকদের জন্য আরও একটি আকর্ষণের কেন্দ্র হয়ে উঠবে।