Date : 2024-06-24

প্রধানশিক্ষকদের বেতনবৃদ্ধির কাঠামোয় পুরনো নিয়মে ফিরল শিক্ষা দফতর।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : প্রধান শিক্ষকদের বেতনবৃদ্ধির কাঠামোয় পুরনো নিয়মে ফিরল শিক্ষা দফতর। এ নিয়ে শিক্ষা দফতরের তরফে এক বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

পড়ুয়াদের পঠনপাঠন করানোর পাশাপাশি স্কুলের একাধিক কাজের দায়িত্ব থাকে প্রধান শিক্ষক শিক্ষিকাদের হাতে। স্কুল সঠিক ভাবে পরওচালনার জন্য অতিরিক্ত কাজের দায়িত্ব বহন কীতো হয় প্রধান শিক্ষক শিক্ষিকাদের। তাই তাদের কাজকে সম্মান জানিয়ে ২০১৯ সালে রোপা কার্যকর হওয়ার পর ঘোষনা করা হয় কোনও শিক্ষক বা শিক্ষিকা যদি কোনও বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক পদে যোগ দেন তাহলে তিনি ‘ফিক্সেশনাল বেনিফিট’ বা স্থায়ী সুবিধার পাশাপাশি অতিরিক্ত তিন শতাংশ হারে বর্ধিত বেতন পাবেন। কিন্তু ২০২২ সালের মে মাসে শিক্ষা দফতর একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানায় প্রধানশিক্ষকেরা শুধুমাত্র স্থায়ী সুবিধা পাবেন। অ্যাডিশনাল ইনক্রিমেন্ট বা অতিরিক্ত বেতনবৃদ্ধির সুযোগ পাবেন না। শিক্ষা দফতরের এমন সিদ্ধান্ত ঘোষণা করার পর তা নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন প্রধানশিক্ষকদের একাংশ। ফের শিক্ষা দফতর সিদ্ধান্ত বদল করায় খুশি তারা। প্রধান শিক্ষক শিক্ষিকা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক চন্দন মাইতির বক্তব্য, ২০২২ সালের বিজ্ঞপ্তির বিরোধিতা জানিয়ে বিক্ষোভ আন্দোলনের ফল তারা পেয়েছেন। শিক্ষা দফতরের এই ঘোষনায় খুশি তারা।

একবছর পর সেই পুরোনো নিয়মে ফিরতে হল শিক্ষা দফতরকে। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে অর্থ দফতরের অনুমোদন ক্রমে আবারও প্রধানশিক্ষকদের অতিরিক্ত বেতনবৃদ্ধির সুযোগ দেওয়া হবে। এতে খুশি প্রধান শিক্ষক মহলের একাংশ