Date : 2024-04-19

ই জেড সি সি-র পূর্বশ্রী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত হলো বর্ণময় এক উপ শাস্ত্রীয় নৃত্যানুষ্ঠানের

৯ এপ্রিল ই জেড সি সি-র পূর্বশ্রী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত হলো বর্ণময় এক উপ শাস্ত্রীয় নৃত্যানুষ্ঠানের। জি এল এস পরম্পরা। পরিচালনায় ছিল নিউটাউন কলকাতার একটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র : আর্ট অ্যাটেলিয়ার। মূল চরিত্রে ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নৃত্যশিল্পী এবং কোরিওগ্রাফার দেবেশ মিরচন্দানি। দু হাজার একুশ থেকে আর্ট অ্যাটে লিয়ার-এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন পণ্ডিত বিরজু মহারাজের ছাত্র, পরিচিত কথক নৃত্যশিল্পী ও বলিউড কোরিওগ্রাফার দেবেশ মিরচন্দানি। বলিউড ও সোশ্যাল মিডিয়া ছুঁয়ে তার খ্যাতি এখন ভুবন জুড়ে। গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি দেশের নানা প্রান্ত থেকে আগত ছাত্র-ছাত্রীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন অন-লাইন ও অফ-লাইনের মাধ্যমে।
৯ এপ্রিল এর এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এম ডি হিডকো শ্রী দেবাশীষ সেন এবং অধ্যাপিকা ঊর্মিলা সেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কর্নেল ইন্দ্রজিৎ রয়, শ্রীমতী রূপা রয়, GLS এর কর্নধার শ্রী L.R. Kar, Newtown থানার এসিপি শ্রীমতী শ্রেয়া সরকার,92.7 বিগ এফএম এর RJ Rayan, NTFN এর চেয়ারপারসন সমরেশ দাস, মাইন্ডস্ট্রোলোজার পীযূষ রঞ্জন ঘোষ প্রমুখ।

নিউটাউনেরএই আর্ট অ্যাটেলিয়ার-এ ৮ দিন ধরে মিরচন্দানি-র পরিচালনায় চলেছে এক্সক্লুসিভ ড্যান্স ওয়ার্কশপ। সবশেষে ৯ এপ্রিল সল্টলেকের EZCC পূর্বশ্রী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত হলো তিন ঘণ্টা ব্যাপী বর্ণাঢ্য নৃত্যানুষ্ঠান – GLS Parampara। এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন ৮ দিন ব্যাপী ওয়ার্কশপ এ অংশগ্রহণকারীরা, নিয়মিত ক্লাসের ছাত্রছাত্রীরা এবং তাঁদের নৃত্যগুরুরা – সৌমেন কুন্ডু, অনুপূর্বা দত্ত, তনিমা বর্ধন। অসামান্য নিবেদন ছিল প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী সৌভিক অধিকারীর। গণেশ বন্দনা, শ্রী কৃষ্ণ দিয়ে শুরু করে, দিওয়ানি মাস্তানি, খোয়া হ্যায়, ঢোলিদা, নাগারা – এমন 26 টি অনবদ্য নৃত্যশৈলীতে তিন ঘণ্টা বুঁদ হয়ে রইলো অডিটোরিয়াম এ থাকা ৯০০ ও বেশী দর্শক। সম্পূর্ণ বিষয়টির দায়িত্বে ছিলেন Art Atelier এর ফাউন্ডার শ্রী Sandip Sarkar & Creative Director শ্রীমতী Mallika Sarkar এবং তাঁদের টীম।

Art atelier এ শাস্ত্রীয়,উপশাস্ত্রীয় নাচ,গানের পাশাপাশি শরীর চর্চায় যোগ্য করে তুলতে যোগের প্রশিক্ষণেরও ব্যবস্থা রেখেছেন। ২০০০ বর্গফুটের উন্মুক্ত অঙ্গন সহ সুচারু স্টুডিওটি নিউ টাউনের (বিশ্ব বাংলা সরণি) প্রধান সড়কের ওপর অ্যাস্ট্রা টাওয়ারে অবস্থিত।
আর্ট অ্যাটেলিয়ার লন্ডন কলেজ অফ মিউজিকের সঙ্গে যুক্ত। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রমের শিক্ষার্থীদের কীবোর্ড, গিটার, বেহালা, ওয়েস্টার্ন ভোকাল ক্লাসের পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত করে। অন্যদিকে কথক, ভরতনাট্যম, ওড়িশি, সৃজনশীল ও সমসাময়িক নৃত্যের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি পরীক্ষা দেবারও সুন্দর ব্যবস্থা করেছে। প্রাচীন কলা কেন্দ্র, চণ্ডীগড় থেকে এর অনুমোদনও পাওয়া গেছে। সেইসঙ্গে পশ্চিমী নাচ, জুম্বা, যোগা, বলিউড ফিটনেস এবং বাংলা কবিতা বা ছড়া আবৃত্তি শেখারও উপযুক্ত ব্যবস্থা রয়েছে এখানে।
শিল্প, সংস্কৃতি এবং ফিটনেস প্রচারের পাশাপাশি আর্ট অ্যাটেলিয়ার সমাজের সার্বিক উন্নয়নের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ সভা এবং আলোচনা পরিচালনা করতে বিভিন্ন সম্প্রদায়কে সহায়তা করে। আর্ট অ্যাটেলিয়ার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি সমাজকল্যাণমূলক কাজেও প্রতিনিয়ত ন্যস্ত আছে।যেমন জীবন সহায়ক বিপথগামী কুকুর তথা পশুদের প্রতি মরমী মন নিয়ে সহায়তা করা। সবসময় প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য এবং দৃষ্টিভঙ্গি সব বয়সের শিক্ষার্থীদের জন্য সৃজনশীলতায় বিশ্ব উপভোগ করানোর সঙ্গে সঙ্গে ইতিবাচক শিক্ষার পরিবেশ তৈরি করে বিভিন্ন প্রোগ্রামের মাধ্যমে সৃজনশীল মন, প্রতিভা এবং উদীয়মান শিল্পীদের অনুসন্ধান করা এবং তাদের বিকাশ ও প্রচারের উপর দৃষ্টি রাখা।
আর্ট অ্যাটেলিয়ায় থেকে জানা গেল এরা সমৃদ্ধকরণের গুরুত্ব বুঝতে পারেন বলেই কলকাতা এবং ভারতের অন্যান্য অংশের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে সফলভাবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কর্মশালার আয়োজন করে চলেছে।
আর্ট অ্যাটেলিয়ার-এর পথ চলা শুরু হয়েছিল তিন বছর আগে। মাত্র পাঁচজন শিক্ষার্থী থেকে আজ এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাড়ে চারশ-র ওপরে। এসবই সম্ভব হলো আয়োজক সংস্থার কর্ণধার সন্দীপ সরকার এবং মল্লিকা সরকারের উদ্যোগেই।