Date : 2024-05-21

১০ মার্চের পর ফের পেন ডাউন সরকারি কর্মচারিদের। ৬এপ্রিল তারা কর্মবিরতি পালন করেন।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : ১০ মার্চের পর ফের কর্মবিরতিতে সামিল ডিএ আন্দোলনকারীরা। মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের প্রতিবাদে ৬এপ্রিল একদিনের কর্মবিরতি পালন ডাক দিয়েছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। সেই কর্মবিরতিতে সামিল হয়েছেন একাংশ সরকারি কর্মচারি। বকেয়া ডি এর দাবিতে ৭০ দিন ধরে শহীদ মিনারে সামিল কর্মচারীরা। ধর্নার পাশাপাশি অনশনেও বসেন তারা কিন্তু সম্প্রীতি অনশন স্থগিত রাখা হয়েছে তবে চলছে ধর্না। ৬ই এপ্রিল স্কুলগুলিতে রয়েছে ইউনিট টেস্ট। তাই পরীক্ষা চলাকালীন স্কুলগুলিতে কোনও কর্মবিরতি পালন হবে না বলে জানিয়েছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ।

এর আগে ১০ মার্চ বকেয়া মহার্ঘ ভাতা ও কেন্দ্রীয় হারে ডিএ চালুর দাবিতে রাজ্যজুড়ে সরকারি কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন করেন। যার ফলে একদিনের জন্য রাজ্য প্রশাসনের কাজে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছিল। যদিও সরকারের তরফে দাবি ছিল, কর্মবিরতিতে কোনও প্রভাব পড়েনি। যারা ১০মার্চের কর্মবিরতিতে সামিল হয়েছিলেন তাদের শোকজ লেটার দিতে বলা হয়েছে। শোকজ লেটারে উত্তর সন্তোষজনক না হলে কর্মবিরতিতে সামিল সরকারি কর্মচারীর সার্ভিস বুক থেকে একদিন কেটে নেওয়া হবে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। এই হুঁশিয়ারির পরেও আন্দোলন থামেনি সরকারি কর্মচারীদের। ৬এপ্রিলও ফের তারা কর্মবিরতিতে সামিল হন।

৬ এপ্রিল কর্মবিরতি পালনের পর এবার কেন্দ্রীয় সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে আগামী ১০ এবং ১১ এপ্রিল দিল্লির যন্তরমন্তরে দুদিনের অবস্থান কর্মসূচি পালন করবে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। সেখানে নিজেদের দাবিদাওয়া নিয়ে আন্দোলন দেখাবেন তারা। সেই সঙ্গে রাষ্ট্রপতি ও কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর কাছে নিজেদের দাবি সনদ তুলে দেবে বলে জানিয়েছে তারা। তাদের বক্তব্য, যতদিন না পর্যন্ত সমস্ত বকেয়া ডিএ মিলছে ততদিন তারা আন্দোলন চালাবেন। পরবর্তীকালে আন্দোলন আরও তীব্রতর হবে বলেও জানান তারা।