Date : 2024-06-26

সালোয়ার কামিজ নয়, শাড়ি পরেই স্কুলে ক্লাস করাতে হবে। পোশাক বিতর্ক কলকাতার স্কুলে।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : সালোয়ার কামিজ নয়, শাড়ি পরেই স্কুলে ক্লাস করাতে হবে। খাস কলকাতার বুকে এক শিক্ষিকাকে এমনই নির্দেশ স্কুল কর্তৃপক্ষের। যা ঘিরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

পোশাক বিতর্কে আগেও উত্তাল হয়েছে স্কুল চত্ত্বর। এবার কলকাতার আলিপুরের এক স্কুলে পোশাক বিতর্ক। আলিপুর বিদ্যাভারতী গার্লস হাইস্কুল। সোমা ভাদুড়ী এই স্কুলের গানের শিক্ষিকা। গত ১৮ বছর ধরে তিনি এই স্কুলেই শিক্ষাকতা করছেন। কিন্তু গত ২১ফেব্রুয়ারির পর থেকে তিনি স্কুলে গেলেও নিতে পারছেন না গানে ক্লাস। তার কারণ তিনি শাড়ির বদলে পরে যাচ্ছে সালোয়ার-কামিজ। আর তাই তাতে আপত্তি স্কুল কর্তৃপক্ষের। সোমাদেবীর অভিযোগ, গত এক মাস ধরে তিনি স্কুলে আসলেও পড়ুয়াদের ক্লাস নিতে পারছেন না। স্কুল কর্তৃপক্ষ তাঁকে জানিয়েছেন সালোয়ার কামিজ পরে এলে ক্লাস করতে পারবেন না। সোমা ভাদুড়ির জানান, ২১ ফেব্রুয়ারি সকালে স্কুলে আসার সময় ভিড় বাসে তার পায়ে শাড়ি জড়িয়ে যায়। সেদিন তিনি বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেলেও মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েন। ঘটনাটি তিনি স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানান। এবং শাড়ির বিকল্প পোশাক সালোয়ার কামিজ পরে আসতে চান। কিন্তু তাতে অনুমতি দেয়নি স্কুল কর্তৃপক্ষ।

সোমাদেবী বক্তব্য তার সব ক্লাস বর্তমানে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। এর প্রতিবাদে তিনি অভিযোগ জানান,মানবাধিকার সংগঠন, রাজ্য মহিলা কমিশন, পুলিশ এবং জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের কাছে। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। এপিডিআর-এর সাধারণ সম্পাদক রঞ্জিত শূরের বক্তব্য,যে কোনও সভ্য পোশাক পরা মানুষের অধিকার। এই নিয়ে এপিডিআর -এর ৫ সদস্য স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে। সোমাদেবীর পাশে আছে এপিডিআর বলে জানান রঞ্জিতবাবু। বহু বছর ধরে স্কুলের একটা নিয়ম চলে আসছে। তবে সোমা ভাদুড়ীর বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা চলছে। খুব দ্রুত সমাধান সূত্র বেরিয়ে আসবে বলে জানিয়েছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।