Date : 2024-04-18

অমিত শাহের পদত্যাগ চাইলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।‌ কিন্তু কেন ?

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : ১৪ এপ্রিল সিউড়িতে সভা করেছিলেন বিজেপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেই সভায় তিনি বলেছিলেন ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে এরাজ্যে বিজেপিকে ৩৫ টা আসনে জেতালে ২০২৫-এ ভেঙ্গে যাবে তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত সরকার। এবার অমিত শাহের এই মন্তব্যের জন্য তাঁর পদত্যাগ দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শুক্রবার বীরভূম জেলার সিউড়িতে রাজনৈতিক সভা করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেখানে ভাষণ দেওয়ার সময় তিনি বলেন ২০২৪ সালে কেন্দ্রে ফের নরেন্দ্র মোদির সরকার গঠন করতে হলে এরাজ্য থেকে ৩৫ টি আসনে বিজেপিকে জেতান। বিজেপি ৩৫ টি আসন পেলে ২০২৫ সালে এখানকার সরকার পড়ে যাবে। অমিত শাহের এই বক্তব্যেই নিজের আপত্তির কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলন করার সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সভা করতেই পারেন। তা নিয়ে আপত্তির কিছু নেই। কিন্তু তিনি কখন‌ই বলতে পারেন না যে ৩৫ টা আসন পেলে বাংলার সরকারটা আর থাকবে না। গনতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত একটা সরকারকে তিনি ভেঙ্গে দেওয়ার কথা বলছেন।” ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন করেন, “কোন আইনে তিনি এমন কথা বলছেন ? একথা বলার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকার কোনো অধিকার তাঁর নেই। আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করছি।” স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ চাওয়ার পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এটাও বলেন যে “২০২৪ এ তো ওরা (বিজেপি) ক্ষমতাতেই আসবে না। আগে তুই ৫ টা পেয়ে দেখা, তারপর না হয় ৩৫ টার কথা বলবি।” বিজেপিকে কেন্দ্র থেকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য তিনি ফের একবার বিরোধী দলগুলোকে একজোট হ‌ওয়ার বার্তা দেন। তিনি বলেন, “আমি বিরোধী দলগুলোকে আবার বলবো আসুন আমরা সবাই একসাথে মিলিত হ‌ই। আমরা সবাই যদি একসাথে মিলিত হ‌ই তাহলে আমি নিশ্চিত ২০২৪ এ বিজেপি ক্ষমতায় আসবে না।”