Date : 2024-04-18

গরমের হাত থেকে পড়ুয়াদের রেহাই দিতে স্কুল ছটি থাকলেও, সিলেবাসে ছুটি নেই।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে ২মে থেকে সব সরকারি স্কুলগুলিতে পড়ছে গরমের ছুটি। তবে এই ছুটিতে কত দিন বন্ধ থাকবে স্কুল তা এখনও অজানা। তাই সঠিক সময়ে সিলেবাস শেষ করতে অনলাইন ক্লাসের উপর ভরসা রাখছে বহু স্কুল।

তীব্র গরমের হাত থেকে পড়ুয়াদের রেহাই দিতে এগিয়ে আনা হয়েছে গরমের ছুটি। অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী চলতি বছরের গরমের ছুটি পড়ার কথা ছিল ২২মে থেকে। কিন্তুু তীব্র দাবদহের কারণে ২ মে থেকে পড়ছে সেই ছুটি। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে নেওয়া হয়েছে সেই সিদ্ধান্ত। শিক্ষা দফতর ছুটি পড়ার দিন ঘোষণা করলেও, গরমের ছুটি কাটিয়ে কবে পড়ুয়ারা ক্লাসে ফিরবে তা এখনও ঘোষণা করা হয়নি। শিক্ষা দফতরের পরবর্তী নির্দেশিকায় তা জানানও হবে। গতবছর গরমের ছুটি একটানা প্রায় দেড় মাস ছিল। চলতি বছরেও যদি ততদিন ছুটি থাকে তাহলে সিলেবাস শেষ করা বেশ কঠিন হয়ে পড়বে বলে মত শিক্ষকমহলের একাংশের। তাই এই ছুটিতে বিকল্প ক্লাসরুম হিসেবে অনলাইন পদ্ধতিকে বেছে নিচ্ছেন রাজ্যের অনেক সরকারি স্কুলই।

করোনা আবহে টানা প্রায় দু বছর স্কুল বন্ধ থাকায় অনেকটাই ক্ষতি হয়েছে পড়ুয়াদের। অনলাইনে ক্লাস চললেও তাতেও বাধ সেঁধেছে ইন্টারনেট। এখন পড়ুয়াদের সেই খামতি মেটাতে মরিয়া স্কুলগুলি। তাই গতবছরের মত একটানা দীর্ঘ দিন ছুটি না দিয়ে, আবহাওয়ার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে দ্রুত স্কুল খোলার আর্জি জানাচ্ছেন শিক্ষকমহলেও অনেকেই।

শহরের বেশ কিছু বেসরকারি স্কুল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাসগুলির ক্ষেত্রে গরমের ছুটি কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাপমাত্রার পারদ নিম্নমুখী হলেই উঁচু ক্লাসগুলির ক্ষেত্রে অফলাইনে পঠনপাঠন শুরু করার কথা ভাবছেন তারা। আর নিচু ক্লাস গুলির ক্ষেত্রে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার কথা চিন্তাভাবনাও করা হচ্ছে।