Date : 2024-07-16

জয়েন্টের ফল দ্রুত প্রকাশিত হলেও এখনই হচ্ছে না কাউন্সেলিং শুরু।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক :

প্রকাশিত হয়েছে রাজ্য জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার ফল। চলতি বছর জয়েন্ট হয় ৩০এপ্রিল। ২৬ দিনের মাথায় ফল প্রকাশ করা হয়। দ্রুত ফল প্রকাশিত হলেও এখনই হচ্ছে না কাউন্সেলিং শুরু। জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ডের সভাপতি মলয়েন্দু সাহা বলেন, প্রযুক্তির কেন্দ্রীয় নিয়ামক সংস্থা এআইসিটিই, স্থাপত্যবিদ্যার নিয়ামক সংস্থা কাউন্সিল অব আর্কিটেকচার এবং ফার্মাসির নিয়ামক সংস্থা ফার্মাসি কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া এখন কলেজগুলিকে অনুমোদন দেওয়ার প্রক্রিয়া চালাচ্ছে। তা শেষ হতে হতে ৩১ জুন হয়ে যেতে পারে। সমস্ত তথ্য পাওয়ার এক সপ্তাহ পর থেকেই কাউন্সেলিংয়ের প্রক্রিয়া শুরু করা যাবে। অ্যালটমেন্ট, আপগ্রেডেশন এবং মপ-আপ—এই তিন ধাপে হবে কাউন্সেলিং। রাজ্যের সব কলেজ মিলিয়ে গতবার প্রায় ৩৪ হাজার আসন ছিল।কাউন্সিল অব আর্কিটেকচার, ফার্মাসি কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া এবং এআইসিটিই সহ রাজ্যের অন্যান্য কলেজগুলি থেকে সব তথ্য পাওয়ার পরই আসন সংখ্যা কত তা জানা যাবে বলে জানিয়েছেন বোর্ড সভাপতি।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে জেলা টেক্কা দিলেও জয়েন্ট এন্ট্রান্সের ফলে বাজিমাত করেছে কলকাতা। জয়েন্টে প্রথম মহম্মদ সাহিল আখতার এবং সোহম দাস দু’জনেই কলকাতার ডিপিএস রুবি পার্ক স্কুলের ছাত্র। সোহম জয়েন্ট এন্ট্রান্স এগজাম (মেইন) পরীক্ষাতেও ১০০ পার্সেন্টাইল পেয়ে দেশের অন্যতম প্রথম হয়েছিলেন। তৃতীয় স্থানাধিকারী সারা মুখোপাধ্যায় বাঁকুড়া বঙ্গ বিদ্যালয়ের ছাত্রী। গতবারের তুলনায় এবার আবেদনকারী পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কিছুটা বেশি। মোট ১ লক্ষ ২৪ হাজার ৯১৯ জন পরীক্ষার্থী এবার জয়েন্ট এন্ট্রান্সে নাম নথিভুক্ত করেছিলেন। পরীক্ষায় বসে ৯৭ হাজার ৫২৪ জন পরীক্ষার্থী । যার মধ্যে সফল হয়েছেন ৯৬ হাজার ৯১৩ জন। সাফল্যের হার ৯৯.৪ শতাংশ।