Date : 2024-05-28

মৃত্যুর সাথে লড়াই, সেই লড়াই বুধবার শেষ হলো মনসুর আলমের।

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক:- টানা ৫ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়াই করেছেন কমরেড মনসুর আলম।বুধবার সকলকে ছেড়ে কমরেড মনসুর আলম চলে গেলেন। বুধবার ভোর ৩.০৯ এ শিলিগুড়ির এক বেসরকারি নার্সিং হোমে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন তিনি। সিপিআই(এম), চোপড়া ২ এরিয়া কমিটি দাসপাড়া এলাকার ছাত্র আন্দোলনের এক সৈনিক ছিল সে।

রাজ্য জুড়ে নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে নিজেই গ্রাম পঞ্চায়েত প্রার্থী হয়ে দাঁড়ানোর মনস্থির করেন। এই পঞ্চায়েত ভোটে প্রথম ভোট দিত। দলবেঁধে মনোনয়ন পত্র হাতে নিয়ে জমা দিতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়। গুলি লেগেছিল মাথায়। গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পরে মনসুর আলম। প্রথমে ইসলামপুর হাসপাতালে পরে অবস্থা সংকটজনক হওয়ায় স্থানান্তরিত করা হয় শিলিগুড়িতে। সেখানেই জীবনাবসান হয় অল্প বয়সি মনসুর আলির।

শহিদ কমরেড মনসুর আলমের পরিবার পরিজনের প্রতি অত্যন্ত সমবেদনা জানিয়েছেন সিপিআই(এম) এরিয়া কমিটির সম্পাদক বিদ্যুৎ তরফদার। তিনি পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন। তিনি জানিয়েছেন বিকেলে মরদেহ আসবে। হাজার হাজার মানুষের শেষ শ্রদ্ধা হবে।
এখবর জানিয়ে পার্টির জেলা সম্পাদক আনোয়ারুল হক বলেন,শহিদের মৃত্যু বরণ করেছেন কমরেড মনসুর আলম। বহু চেষ্টা বহু লড়াইয়ের পরেও তাঁকে বাঁচানো গেল না। তিনি বলেন তাঁর এই ত্যাগ মানুষ ভুলবে না। শহীদ কমরেডের এই লড়াইয়ে দল ও মানুষ পাশে আছে।