Date : 2024-06-21

“সিবিআই নিয়ে কিছু বলবো না। সত্যটা সামনে আসুক।”

রুমঝুম সামন্ত, নিউজ ডেস্ক; বালেশ্বরে ভয়ঙ্কর ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতদের দেখতে মঙ্গলবার ওড়িশা যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কটক হাসপাতালে আহতের সঙ্গে সাক্ষাতের পর তাদের পাশে থাকার বার্তা দেন তিনি। তবে এদিন করমণ্ডল এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় সিবিআই তদন্ত নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি মুখ্যমন্ত্রী। বরং তিনি বলেন, “সিবিআই নিয়ে কিছু বলবো না। সত্যটা সামনে আসুক।” পশ্চিমবঙ্গের 97 জন এখনও ওড়িশার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। মৃতদের মধ্যে বঙ্গের শতাধিক দেহ চিহ্নিত করা গিয়েছে।

বালেশ্বরে ট্রেন দুর্ঘটনায় তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষের প্রকাশ করা অডিও বার্তার প্রসঙ্গ টেনে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগ “পুরো ঘটনার পিছনে রয়েছে তৃণমূলের ষড়যন্ত্র।” পাল্টা শুভেন্দু অধিকারীকে “পাগল” বলে কটাক্ষ করলে কুণাল ঘোষ।

“জনসংযোগ কর্মসূচি আটাকতেই নাকি বিজেপি এমনটা করছে।” রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুবাই সফর আটকানোর প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার হুগলিতে তৃণমূলের নব জোয়ার কর্মসূচি থেকে সাংবাদিক সম্মলনের মাধ্যমে তিনি বলেন,

“আমার সঙ্গে লড়াই করে পারছে না বলে স্ত্রী সন্তানকে হেনস্থা করছে”
“গত 12 মাস ইডি রুজিরাকে তলব করেনি”
“নবজোয়ার যাত্রা শুরুর পর থেকেই তা বিঘ্নিত করার চেষ্টা করছে”
“২ বছরের ছেলে এবং 9 বছরের মেয়েকেও আটকানো হয়েছে”
“ওদের দোষ কী?”

পাশাপাশি তিনি এও বলেন, এসএসসি দুর্নীতির সব থেকে বড় সুবিধাভোগী যদি কেউ থাকে তার নাম শুভেন্দু অধিকারী। স্ত্রী সন্তানদের গ্রেফতার করলেও মাথা নত করব না। রুজিরাকে তলব প্রসঙ্গে কেন্দ্রকে পাল্টা হুশিয়ারী দিয়েছেন তিনি।

অভিশপ্ত করমণ্ডল এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় প্রাণ কেড়েছে রাজ্যের বহু মানুষের। যা নিয়ে মুখে মানবিকতার বুলি আওরানো নেতারাও প্রায় 300 মৃত্যুর 30 ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই নেমে পরেছে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে। একদিকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা যেমন দাবি করছেন, দুর্ঘটনার পিছনে জড়িয় থাকতে পারে কোনও রাজনৈতিক দল। তেমনই পাল্টা দিয়েছেন কুণাল ঘোষ। এরই মধ্যে বুধবারই নিহতদের পরিবারের হাতে চাকরি তুলে দিতে চলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মূহুর্তে জীবন হয়ে উঠল দেহ। আর সেই দেহ গুলি হয়ে উঠল নেতাদের রাজনীতির অস্ত্র। সত্যিই কি বিচিত্র এ দেশের রাজনীতি।