Date : 2024-02-24

Kolkata HighCourt News : ধর্মতলার ভিক্টোরিয়া হাউসের সামনে শর্তসাপেক্ষে অনুমতি প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক : আগামী ২৯ নভেম্বর শনিবার বিজেপির সভায় অনুমতি দিল কলকাতা হাইকোর্ট। প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ এদিন রাজ্যকে ঐ স্থানেই সভা করার অনুমতি দিতে নির্দেশ দিয়েছে।
রাজ্যের বক্তব্য সভার অন্তত ২৩ দিন আগে আবেদন করতে হয়। কিন্তু প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশ বহাল রেখে সভা করার অনুমতি দেয়।

তবে যেহেতু এই ধরনের মিটিংয়ে, জনসমাবেশে ট্রাফিক ব্যাবস্থার অবনতি হয় তাই পুলিশ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি মাথায় রেখে যুক্তি সংগত কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারে।

রাজ্যের আইনজীবী কিশোর দত্ত – ভিক্টোরিয়া হাউস হচ্ছে কলকাতা ইলেকট্রক সাপ্লাই করপোরেশনের অফিস। তিন রাস্তার সংযোগস্থল । ২১ জুলাই ১৯৯৩ তৎকালীন কংগ্রেস ভোটার পরিচয় পত্র প্রদানের দাবিতে আন্দোলন করেছিল।সেই আন্দোলনে প্রায় ১৩ জন যুব কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু হয়।পরে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর সেই দিনটি উদযাপন করে। এ ছাড়া আলাদা কোনো বিষয় নেই ঐ স্থানে শাসক দলের সভা করার।

প্রধান বিচারপতি – আমি বিগত দুবছর ধরে দেখছি কলকাতার বিভিন্ন রাস্তায় মিটিং মিছিল করা হয়। একটা রাস্তায় অনুমতি না পেলে অন্য রাস্তায় করা হয়। এতে সাধারণ মানুষের অসুবিধা হয়।কিন্তু এটাই এই রাজ্যের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। শুধু রাজনৈতিক দল নয়। বিভিন্ন অরাজনৈতিক সংগঠন ও করে।

কিশোর দত্ত – বিজেপি যে আবেদন করেছিল সেখানে জানানো হয় প্রায় ১০ হাজার সমর্থক ও দুশোর মত গাড়ি আসতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

প্রধান বিচারপতি – অহেতুক জটিলতা সৃষ্টি করা হচ্ছে। নানা রকম অজুহাত দিয়ে সভা আটকানোর চেষ্টা। রাজনীতির তাস না খেলে কিছু যুক্তিগ্রাহ্য শর্ত দিয়ে মিছিলের অনুমতি দিয়ে দিলেই তো মিটে যেতো।

প্রধান বিচারপতি – হনুমান জয়ন্তীর পর মিটিং মিছিল নিয়ে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল সেগুলো কার্যকর করা হয় নি।একই সঙ্গে এই ধরনের মিটিং মিছিলে সরকারি বাস গুলো তুলে নেওয়া হয় সাধারণ মানুষের সমস্যার কথা না ভেবেই।