Date : 2024-02-24

TMC Protest : ধর্ণা মঞ্চের পোস্টারে পদ্য। শ্লোগানে মোদি-শাহ কে চোর বলে উল্লেখ

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : কেন্দ্রীয় বঞ্চনার প্রতিবাদে তৃণমূল পরিষদীয় দলের ডাকা ধর্ণা। সেই ধর্ণা মঞ্চে পদ্যের আকারে বিজেপিকে আক্রমণে ফিরে এলো অতীতের স্মৃতি। শ্লোগানে যখন সরাসরি নরেন্দ্র মোদী বা অমিত শাহ কে চোর বলে আক্রমণ করা হলো, তেমনি প্ল্যাকার্ডে দেখা গেল কবিতা লেখা।

‘দিদির সঙ্গে বঙ্গে বসে নিচ্ছ তুমি পাঙ্গা, সবাই জানে ভারতজুড়ে কারা বাঁধায় দাঙ্গা।’ নাম না করেই এই কবিতা যে বিজেপিকে উদ্দেশ্য করে লেখা হয়েছে তা বলাই যায়। আবার কোনও প্ল্যাকার্ডে লেখা ‘নীরব কেন ললিত হয়ে সেলাই করে গদি, সেই গদিতে দুলছে কেমন দামোদর দাস মোদী’। এই কবিতার মাধ্যমে তিন মোদিকে একসঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে। অর্থ তছরুপের দায়ে অভিযুক্ত নীরব মোদী, ললিত মোদীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সখ্যতা বোঝাতেই যে এমনটা লেখা হয়েছে তা পরিষ্কার জানাচ্ছেন শাসকদলের বিধায়কেরা। এই ধরনের প্ল্যাকার্ডের পাশাপাশি অবশ্য একশো দিনের কাজের বকেয়া টাকা বা আবাস যোজনার বকেয়া টাকা বা নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমানোর দাবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড ও ছিলো ধর্ণা মঞ্চে। তবে শুধু প্ল্যাকার্ড নয়, শ্লোগানেও সরাসরি আক্রমণ করা হয় কেন্দ্র সরকারকে। অবশ্য সেই আক্রমণের মূল লক্ষ ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ্।

“ওয়ান টু থ্রি ফোর, মোদি চোর, অমিত চোর,’ বা ‘ওয়ান টু থ্রি ফোর, বিজেপির সবাই চোর’ শ্লোগানে যখন বিধানসভায় অম্বেডকরের মূর্তির পাদদেশ মুখরিত তখন ধর্ণা মঞ্চে বসে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং। মঙ্গলবার এই বিধানসভা চত্বরেই বিজেপি বিধায়কদের মুখে শোনা গিয়েছিলো ‘পিসি চোর ভাইপো চোর, তৃণমূলের সবাই চোর’, এদিন মোদি-শাহর নাম করে চোর শ্লোগানে যেন সেটাই ফিরিয়ে দিলেন তৃণমূল এর বিধায়কেরা।