Date : 2024-02-25

৮জানুয়ারি থেকে ১৭ই জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে গঙ্গা সাগর মেলা নবান্নে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক : দেশ বিদেশ থেকে ৪০ লক্ষের বেশি মানুষের সমাগম হবে নবান্নে বৈঠকের শেষে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।গঙ্গা সাগরের মেলা শুরু হচ্ছে নতুন বছরের গোড়াতেই। আগামী ৮ই জানুয়ারি স্বামী বিবেকানন্দের জন্মতিথিতেই শুরু হয়ে যাচ্ছে গঙ্গাসাগর মেলা। চলবে ১৭ই জানুয়ারি ২০২৪পর্যন্ত।

বুধবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যে মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, দমকলমন্ত্রী সুজিত বোস, পুর ও নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস সহ ১৫জন মন্ত্রী। এছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ দফতরের ১৮জন আধিকারিক।

গঙ্গা সাগরের মেলা উপলক্ষে মানুষের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে কলকাতা ও রাজ্য পুলিশ যেমন মোতায়ন থাকছে। পাশাপাশি থাকছেন রাজ্য পুলিশের ডিজি, একাধিক অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার অফ পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে স্পষ্টতা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে এ বছর গঙ্গাসাগর মেলায় কোন কণ্যার্থী তারা মেলা প্রাঙ্গণে কাঠ জ্বালিয়ে রান্না করতে পারবেন না। তারা ড্রাই ফুড যেমন নিয়ে আসতে পারবেন তার পাশাপাশি রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ড্রাই ফুড বিতরণ করা হবে। পাশাপাশি ৭লাখ ছোট ছোট জলের পাউচ দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মানুষের নিরাপত্তায় কোন ছেদ রাখতে চাননা নেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।তাই মেলা প্রাঙ্গন জুড়ে থাকছে এক হাজার ১৫০ টি সিসিটিভি। থাকছে জিপিএস এবং স্যাটেলাইট পাশাপাশি থাকছে একাধিক ড্রোনের ব্যবস্থা।

মুখ্যমন্ত্রী এটাও জানিয়েছেন যে গঙ্গাসাগর মেলায় যে আগুনই তো অন্যার্থীদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা জীবন বীমার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাদের যাতায়াতে যাতে কোন সমস্যা না হয় সেই কারণে ২২৫০ টি সরকারি বাস এবং ১৫০০ টি বেসরকারি বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পাশাপাশি মোট ৬৬টি ট্রেন ও প্রতিদিন ১৫ থেকে ১৬ টি ট্রেন নিয়মিত চলবে। ৩২ টি ভিশন থাকছে পরিবহন পারাপার করার জন্য এবং মানুষের পারাপারের জন্য ১০০ টি লঞ্চ এবং বার্জ থাকছে।

লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষের যেখানে সমাগম হবে অবশ্যই তাদের স্বাস্থ্যের কথাটাও বারবার বলেছেন নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী। তাই অগণিত মানুষের সুস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই সাতটি অস্থায়ী যেমন হাসপাতাল তৈরি করা হচ্ছে। হাসপাতাল গুলিতে থাকছে ৩০০ বেড। ১২ জায়গায় থাকছে মেডিকেল টিম। থাকছে ১০০টি অ্যাম্বুলেন্স ও একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স।

৪০ লক্ষ মানুষের সমাগম হবে এ বছর গঙ্গাসাগর মেলায়। মেলা প্রাঙ্গণে যাতে শৌচকর্ম করতে অসুবিধা না হয় তাই পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক শৌচালয়ের বন্দোবস্ত করা হচ্ছে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে। পুরুষদের জন্য থাকছে ১০ লক্ষ বাথরুম টয়লেট। মহিলাদের জন্য থাকছে ৭০০টি ওয়াশ রুম।

দেশ-বিদেশ থেকে বহু পুর্নার্থী তারা গঙ্গাসাগর মেলাতে আসেন তাই ভাষাতে অনেক সমস্যা হতে পারে সেই সমস্ত মানুষের কথা মাথায় রেখে বাংলা হিন্দি উর্দু ইংলিশ সহ মোট ৮টি ভাষায় অনবরত মাইকিং করে প্রচার করা হবে। ভিআইপিদের দৌরাত্ম আটকাতে স্পষ্ট তো জানিয়ে দিয়েছেন তারা পাইলট কার নিয়ে এখানে ওখানে যেতে পারবেন না ।