Date : 2024-02-24

NATIONAL MEDICAL COMMISSION : লোগোয় ‘ভারত-ধ্বন্বন্তরি’, নয়া বিতর্কে এনএমসি

সায়ন্তিকা ব্যানার্জি, সাংবাদিক: ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশনকে ঘিরে তৈরি হল নতুন বিতর্ক। এর লোগোতে জুড়ে দেওয়া হল ধন্বন্তরির ছবি, যাকে আয়ুর্বেদ স্বাস্থ্যের জনক বলা হয়। চিকিৎসক মহলের একাংশ অভিযোগ তুলছে, এভাবেই ধীরে ধীরে গোটা দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার গৈরিকীকরণের চেষ্টা করছে মোদি সরকার।

এই নিয়ে স্বাভাবিক ভাবেই সরব বেশ কিছু চিকিৎসক সংগঠন। মেডিকেল সার্ভিস সেন্টারের রাজ্য সম্পাদক বিপ্লব চন্দ্র* এক প্রেস বিবৃতিতে বলেন, ‘সম্প্রতি ন্যাশনাল মেডিকেল কমিশন যা সারাদেশে মেডিকেল শিক্ষা, স্বাস্থ্যকে পরিচালনা করে , তাদের লোগোতে হিন্দু দেবতা বিষ্ণুর অবতার ধন্বন্তরীর ছবি ব্যবহার করেছে এবং ইন্ডিয়ার পরিবর্তে “ভারত” কথাটি ব্যবহার করেছে। আমরা মনে করি‌ মেডিকেল শিক্ষা ধর্মীয় প্রভাবমুক্ত বিজ্ঞানসম্মত হওয়া উচিত। কিন্তু এনএমসির এই পদক্ষেপ ভারতবর্ষের সেকুলার চিন্তাধারার উপর আঘাত। আমরা আগেও দেখেছি কেন্দ্র সরকার এনএমসি এর মাধ্যমে বিভিন্ন সময় মেডিকেল শিক্ষাকে গৈরিকীকরণের প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে। “হিপোক্রেটিক ওথ”-এর পরিবর্তে “চরক শপথ” চালু, চিকিৎসকদের খাদি পরিধানের নিদান দেওয়া, MBBS-এ আয়ুষ অন্তর্ভুক্তি ইত্যাদি পদক্ষেপ তারা আগেই নিয়েছে।’

শুধু তাই নয়, ভারতের মতো ধর্ম নিরপেক্ষ দেশে বিজ্ঞানের সঙ্গে যুক্ত সংস্থায় আচমকা হিন্দু দেবতার ছবি কেন, তা নিয়েই প্রশ্ন বিভিন্ন চিকিৎসক সংগঠনের। তাদের অভিযোগ, বিভিন্ন সময়ে চিকিৎসা শাস্ত্রকে গৈরিকীকরণের চেষ্টা চালিয়েছে কেন্দ্র।

এই নিয়ে সরব অ্যাসোসিয়েশন অব হেলথ সার্ভিস ডক্টর্সের সাধারণ সম্পাদক মানস গুমটাও। তিনি বলেন, ‘‘লোগোতে হিন্দু দেবতা, দেশের নামের পরিবর্তন পূর্ণ গৈরিকীকরণের প্রচেষ্টা এবং বিজ্ঞান ও মানবতার চূড়ান্ত পরিপন্থী।’’