Date : 2024-02-25

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়এর নির্দেশে KMC শূন্যভাঁড় এলো ১লাখ।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক : “রামসর” উকিল ভেরিতে বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার নির্দেশ।মামলা কারিকে ১লাখ টাকার জরিমানা করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। কলকাতা পুরসভার নির্দেশ কার্যকর না করায় মামলাকারি হিতেশ শর্মাকে ১লাখ টাকা জরিমানা করেন বিচারপতি। আগামী ৭দিনের মামলাকারি কলকাতা পুরসভাকে ১লাখ টাকা জরিমানার টাকা দেবে। নির্দেশ বিচারপতির।

কলকাতা পুরসভার আইনজীবী গোপাল চন্দ্র দাস ওআইনজীবী অনন্যা দাস বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়এর মামলা শোনার এক্তিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তারা জানায় জাতীয় পরিবেশ আদালতের ৮সদস্যের কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাই পরিবেশ আদালতের অথবা সুপ্রিম কোর্ট এই মামলায় হস্তক্ষেপ করতে পারে। কিন্তু কলকাতা হাইকোর্ট এই মামলা শোনার কোন অধিকার নেই।
জাতীয় পরিবেশ আদালতে নির্দেশ পাওয়ার পরেই কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে উকিল ভেড়িতে অংশে বেআইনি নির্মল চলছিল তার বর্তমান মালিককে ওই বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার নোটিশ পাঠায় কলকাতা পুরসভা। এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় মামলাকারী।

মামলাকারি হিতেশ শর্মার পক্ষের আইনজীবী জানায় কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে তাদের নির্মাণ করার জন্য প্ল্যান দিয়েছিল। সেই মতোই তারা নির্মাণের কাজ শুরু করেছে।

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় মামলাকারির উদ্দেশ্যে প্রশ্ন জাতীয় পরিবেশ আদালতের নির্দেশে যখন কলকাতা পুরসভা আপনাদে১৯ডিসেম্বর ২০২২ সালে কলকাতা পুরসভা নোটিশ দিয়ে বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে। তা না করে কেন আপনারা আদালতের দ্বারস্থ হলেন।

“প্রকৃতির ভারসাম্য নষ্ট করে বেআইনি ভাবে জলাশয় ভরাট করা যাবে না। মামলার আবেদন খারিজ করে মামলাকারীকে ১লাখ টাকার জরিমানা করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।