Date : 2024-02-25

“বিড়ি বাঁধতে জানেই না। বিড়ির বদলে অন্য কিছু খায় হয়তো”, রাহুল গান্ধীকে তীব্র আক্রমণ মমতার

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক ঃ না। আর ধরি মাছ না ছুঁই পানি নয়। এবার একেবারে খুল্লাম খুল্লা আক্রমণ রাহুল গান্ধীকে। শুক্রবার রেড রোডের ধরণা মঞ্চ থেকে রাহুল গান্ধীর নাম না করেই ফের একবার তাঁকে বসন্তের কোকিল বলে কটাক্ষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচন। এরাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে জোট করে ময়দানে নেমেছে কংগ্রেস ও সিপিএম। এপ্রিল মাসের ২৬ তারিখ পার্ক সার্কাস ময়দানে হাতে হাত রেখে সভা করছেন রাহুল গান্ধী ও বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তারপরেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গিয়েছিলো “বসন্তের কোকিল” শব্দটি। নাম না করলেও তিনি যে রাহুল গান্ধীকে উদ্দেশ্য করেই একথা বলেছিলেন বলেই সকলে মনে করেন। এরপর ২০২২ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি। উত্তর প্রদেশ নির্বাচনের যাদবের সমাজবাদী পার্টির হয়ে প্রচারে লখনৌয়ের এক ভার্চুয়াল জনসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে উদ্দেশ্য করে আরো একবার এই “বসন্তের কোকিল” কথাটি বলেছিলেন। সেবারও অবশ্য এই দুজনের নাম তিনি মুখে আনেন নি। তারপর গঙ্গা ও যমুনা দিয়ে অনেক জল বয়ে গিয়েছে। গত বছর বেঙ্গালুরুতে “ইন্ডিয়া (I.N.D.I.A)” জোটের বৈঠকের সময় এই রাহুল গান্ধীকে উদ্দেশ্য করেই একেবারেই নাম নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, “আমাদের ফেভারিট রাহুল”।

ইন্ডিয়া জোট (I.N.D.I.A), যার নামকরণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং, সেই জোটের বর্তমান অবস্থা অন্তত আমাদের রাজ্যের ক্ষেত্রে একেবারেই ভঙ্গুর। বলা যেতে পারে সেই জোটে শেষ পেরেক পোঁতার কাজ হয়ে গিয়েছে। বস্তুতঃ শুক্রবার রেড রোডের ঝরনা মঞ্চ থেকে যেভাবে নাম না করে রাহুল গান্ধীকে আক্রমণ করলেন তৃণমূল সুপ্রিম, তাতে এ রাজ্য তো বটেই সারা দেশের নিরিখে কংগ্রেস এবং তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যকার সম্পর্ক একটা বড়সড়ো প্রশ্নের মুখে এসে দাঁড়িয়ে গেল। এদিন রেড রোডের ধারণা মঞ্চ থেকে বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন “ভোট এসেছে তাই ‘বসন্তের কোকিল’রা ফটোশ্যুট করতে এসেছে।” রাহুল গান্ধী তাঁর ভারত জোড়ো ন্যয় যাত্রায় এ রাজ্যে এসে এখনো পর্যন্ত যে যে কর্মসূচি গুলো নিয়েছেন, আজ নাম না করেও সেই সবগুলোকেই কটাক্ষ করে মন্তব্য ছুড়ে দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “যারা কোনওদিন চায়ের দোকানে বসেইনি, চা বানাতে জানেই না, বাচ্চাদের আদর করেই নি, শিশু বলতে কি বোঝেই না, বিড়ি বাঁধতে জানেই না, বিড়ির বদলে অন্য কিছু খায় হয়তো। বাব্বা বসন্তের কোকিলরা চলে এসেছে”। পাশাপাশি কংগ্রেসকে নিয়েও কটাক্ষ করে তৃণমূল সুপ্রিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “সারাদেশে ৩০০ আসনে লড়াই করতে দিলে তোমরা ৪০ টা পাবে কিনা সন্দেহ।” মুখ্যমন্ত্রীর এইসব মন্তব্য যে একেবারেই রাহুল গান্ধীকে উদ্দেশ্য করে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কংগ্রেস সাংসদ তথা গান্ধী পরিবারের অন্যতম মুখ রাহুল গান্ধীকে উদ্দেশ্য করে মমতার করা এই মন্তব্যে কংগ্রেস কি জবাব দেবে তার উপরেই নির্ভর করবে জোটের ভবিষ্যৎ।