Date : 2024-04-14

অবশেষে মন্ত্রিত্ব গেল জেলবন্দী জ্যোতিপ্রিয়র। প্রেস বিবৃতি জারি রাজভবনের

রেশন দুর্নীতি কান্ডে গ্রেফতার হওয়ার সাড়ে তিন মাস পর মন্ত্রিত্ব গেল জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের। শুক্রবার রাজ ভবন থেকে জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের হাতে থাকা দুইটি দফতর যথাক্রমে বীরবাহ হাঁসদা ও পার্থ ভৌমিককে দেওয়া হল।

রেশন দুর্নীতি কান্ডে ২০২৩ এর ২৭ অক্টোবর গ্রেফতার হয়েছিলেন রাজ্যের তৎকালীন বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। দূর্নীতি কান্ডে গ্রেফতার হওয়ার পরেও তাঁকে কিন্তু মন্ত্রীত্ব থেকে সরান নি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক গ্রেফতার হওয়ার পর প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী শুধু বনদপ্তরের প্রতিমন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদাকে দফতরের কাজে আরো একটু বেশি সময় দিতে বলেছিলেন। এই মামলায় ইতিমধ্যেই চার্জশিট ফাইল করেছে ইডি (Enforcement Directorate)। তারপর থেকেই মনে করা হচ্ছিল জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে আর হয়তো মন্ত্রিসভার রাখবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অবশেষে সেটাই সত্যি হলো। শুক্রবার রাজভবন থেকে যে প্রেস বিবৃতি জারি করা হয়েছে তাতে বলা হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শে রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে মন্ত্রিত্ব থেকে সরালেন। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের হাতে থাকা দফতর ভাগ করে দেয়া হলো পার্থ ভৌমিক এবং বীরবাহা হাঁসদার মধ্যে। জ্যোতিপ্রিয়র হাতে থাকা বন দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী করা হলো মুখ্যমন্ত্রীর খুব স্নেহের বীরবাহা হাঁসদাকে। এতদিন তিনি শুধু প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। এবার তিনি স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী হলেন। পাশাপাশি স্বনির্ভর এবং স্বনিযুক্তি দফতরেও স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী থাকছেন বীরবাহা হাঁসদা। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের হাতে থাকা শিল্প উদ্যোগ ও শিল্প পুনর্গঠন দফতরটি গেলো পার্থ ভৌমিকের হাতে। সেচ ও জলপথ পরিবহন দফতরের পাশাপাশি এই দফতরটির‌ও দায়িত্ব সামলাবেন মুখ্যমন্ত্রী ও অভিষেকের গুড বুকে থাকা উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার ডাকাবুকো নেতা পার্থ ভৌমিক।