Date : 2024-05-26

বিজেপির সঙ্গে মুখোমুখি বিতর্কের আহ্বান অভিষেকের। বিজেপি কি করবে !

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : ভোটের মুখে ফের একবার বকেয়া নিয়ে বিজেপি নেতাদের মুখোমুখি বিতর্কের জন্য আহ্বান জানালেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার সমাজ মাধ্যমে পোষ্ট করে এই চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন তিনি।

গত ৬ তারিখ বারাসতে ‘নারী শক্তি বন্ধন’ সমাবেশে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাবি করেছিলেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জন্য কেন্দ্র টাকা দিচ্ছে, কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস সেই টাকা খেয়ে ফেলেছে। প্রধানমন্ত্রীর এই অভিযোগের সঙ্গে সঙ্গেই জবাব দিয়েছিলো তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথ্য দিয়ে দাবি করেন একশো দিনের কাজের ৫৯ লক্ষ লোকের বকেয়া টাকা আমরা দিচ্ছি। আপনারা দেন নি। দুই বছর ধরে বাড়ির এক পয়সাও আপনারা দেন নি। শুধু মিথ্যা কথা বলে যাচ্ছেন। তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়‌ও একাধিক জনসভায় বকেয়া টাকার প্রসঙ্গ নিয়ে বিতর্কের আহ্বান জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার তিনি তাঁর জেলাভিত্তিক রাজনৈতিক জনগর্জন সভা শুরু করার আগে আরও একবার সেই বিতর্কের আহ্বান সামনে নিয়ে এলেন। সমাজ মাধ্যমে তিনি লিখেছেন, “আমি বিজেপি নেতাদের মুখোমুখি বিতর্কের আহ্বান জানাচ্ছি।” সেই সঙ্গে তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেছেন, “২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয়ের পর থেকে এখনও পর্যন্ত ‘আবাস যোজনা’ বা ‘এমজিএনআরইজিএ’ (একশো দিনের কাজ) প্রকল্পে বাংলাকে এক পয়সাও দিয়েছেন কি না সেটা শ্বেতপত্র প্রকাশ করে জানান।” প্রথম পোষ্টের কিছুক্ষণের মধ্যেই অভিষেক আরও একটি টুইট করে লেখেন, আজ বিকাল তিনটায় ময়নাগুড়ির সভায় আমি আপনাদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

আবাস যোজনা ও একশো দিনের কাজের টাকা সংক্রান্ত শ্বেতপত্র নিয়ে আসুন। প্রমাণ দিন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর টুইট কে রিটুইট করে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কে ট্যাগ করে বিতর্কের আহ্বান জানান তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন।

সমাজ মাধ্যমে আক্রমণ শানান রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও। তিনি লেখেন, “আবাস যোজনা বা এমজিএনআরইজিএ প্রকল্পের টাকা কোথায়?” প্রধানমন্ত্রীর এক্স হ্যান্ডেল ট্যাগ করে অরূপ বিশ্বাস যোগ করেন, “প্রধানমন্ত্রী কে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছি,২০২১ থেকে ২০২৪ এর মধ্যে রাজ্যের বকেয়া টাকা দিয়ে থাকলে শ্বেতপত্র প্রকাশ করুন।”

অভিষেক, ডেরেক ও’ব্রায়েন বা অরূপ বিশ্বাস শুধু নন, তৃণমূল কংগ্রেসের একের পর এক নেতা, সাংসদরা এদিন একযোগে শ্বেতপত্র প্রকাশের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন কেন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে।