Date : 2024-05-27

নজিরবিহীন ব্রিগেড সভার নজিরবিহীন প্রস্তুতি। রেকর্ড ভিড়ের আশায় তৃণমূল

নজিরবিহীন ব্রিগেড সভার নজিরবিহীন প্রস্তুতি। রেকর্ড ভিড়ের আশায় তৃণমূল

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : ১০ মার্চের ব্রিগেড সমাবেশ সফল করার জন্য অভিনব প্রস্তুতি নিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। মঞ্চ সজ্জ্যায় এমন কিছু করা হচ্ছে যা শুধু ব্রিগেড কেন, পশ্চিমবঙ্গের কোথাও কোনো রাজনৈতিক সমাবেশে এর আগে হয় নি বলেই দাবি তৃণমূলের।

লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণার আর খুব বেশি দেরি নেই। সম্ভবতঃ এই মাসের ১৩ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যেই দিন ঘোষণা করে দেবে নির্বাচন কমিশন। তার আগে রবিবারের ব্রিগেড সমাবেশ সফল করার জন্য দলীয় স্তরে একের পর এক পদক্ষেপ করা হচ্ছে। মাত্র ১৫ দিন আগে ‘জনগর্জন সভা’-র নামে ব্রিগেড সমাবেশের ডাক দিয়েছে তৃণমূল। লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রাখলে এই সময় এই সমাবেশের ডাক অনেককেই আশ্চর্য করেছে। সাধারনত রাজনৈতিক দলগুলো ব্রিগেডে সমাবেশ করে হয় কোনো নির্বাচন ঘোষণার দুই থেকে তিন মাস আগে, বা নির্বাচন মিটে গেলে বিজয় উৎসব পালন করার জন্য। অথবা নির্দিষ্ট কোনো কর্মসূচি শেষ করে প্রকাশ্য সমাবেশ করার জন্য। এক্ষেত্রেও সমাবেশের ডাক দেওয়া হয় পাঁচ থেকে ছয় মাস আগে। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের অনেকটা আগে ১৯ জানুয়ারি ব্রিগেডে সমাবেশ করেছিলো তৃণমূল কংগ্রেস।

‘ইউনাইটেড ইন্ডিয়া’ ব্যানারে তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকা সেই সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন বিজেপি বিরোধী বিভিন্ন দলের একঝাঁক নেতা নেত্রী। এবার অবশ্য রবিবারের এই সমাবেশে উপস্থিত থাকার জন্য অন্য কোন দলকে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানায় নি তৃণমূল কংগ্রেস। পাশাপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর উদ্যোগে এই সময় ব্রিগেড সমাবেশের ডাক দেওয়াটাও যথেষ্ট অভিনব। তবে শুধু ডাক দেওয়াই নয়, সমাবেশের আয়োজনেও বেশকিছু অভিনব ব্যবস্থা নিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই প্রথম দক্ষিণ ভারতের ধাঁচে মূল মঞ্চ থেকে একটা ramp তৈরি করা হচ্ছে। ৩৪০ ফুট লম্বা এই ramp মূল মঞ্চ থেকে সোজা সামনের দিকে এগিয়ে গিয়েছে। প্রায় ২০০ ফুট পরে ramp এর ডানদিকে ও বাম দিকে দুটো প্রায় ১৫০ ফুটের wings করা হয়েছে। এই ramp দিয়ে হেঁটে গিয়ে সভায় উপস্থিত সাধারণ কর্মি সমর্থকদের একেবারে কাছে পৌঁছে যাওয়ার জন্যেই এই ব্যবস্থা। সূত্রের খবর, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া আরও কয়েকজন এই ramp ধরে হেঁটে কর্মি সমর্থকদের সঙ্গে মিলিত হবেন। তবে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ramp এ হাঁটবেন কি না সেটা তাঁর উপরেই ছেড়ে রাখা হয়েছে। ৭২ ফুট বাই ২০ ফুটের মূল যে মঞ্চ সেটা দুই ভাগে বিভক্ত। এই মঞ্চে থাকবেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, লোকসভা ও রাজ্যসভার সাংসদরা। থাকবেন দলের একেবারে শীর্ষ নেতৃত্ব। এছাড়া কিছু বিশিষ্ট জনকেও (টিকিট পেতে পারে এমন)এই মূল মঞ্চে দেখা যেতে পারে। মূল মঞ্চের দুই পাশে ৬৮/২৪ ফুটের দুটি মঞ্চে থাকবেন রাজ্য বিধানসভার দলীয় বিধায়কেরা এবং পশ্চিমবঙ্গের বাইরে মেঘালয়, অসম, ত্রিপুরা বা উত্তর প্রদেশ এর দলীয় নেতৃবৃন্দ। Ramp সহ সবকটি মঞ্চ মিলিয়ে প্রায় ৬০০ জন নেতৃত্ব থাকবেন, যা কিন্তু এর আগে কখন‌ই হয় নি।