Date : 2024-05-26

আপনার জন্মছকে শনির দৃষ্টি কেমন….!

প্রবীর মুখার্জি ঃ আমরা অনেকেই শনিবার মন্দিরে পুজো দিয়ে থাকি।কেউ জেনে বুঝেই পুজো দিয়ে থাকেন। আবার কেউ বা না বুঝেই পুজো দিয়ে থাকেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এভাবে না জেনে বুঝে পুজো দেওয়া অনুচিত। কারণ, শনিদেবের কুনজর বা অশুভ দৃষ্টিতে ছারখার হয়ে যেতে পারে আপনার জীবন। তা ছাড়া হয়তো ভাবছেন আপনার জন্মছকে শনির প্রভাব কেমন তা জানতে জ্যোতিষীর কাছে যেতে হবে আপনাকে।

একদমই না। আপনিই বুঝতে পারবেন আপনার জন্মছকে শনির নজর কেমন। তার জন্য কোনও জ্য়োতিষীকে দিয়ে আপনার কোষ্ঠী বিচার না করলেও চলবে। শুধুমাত্র প্রয়োজন আপনার সজাগ দৃষ্টির। কীভাবে বুঝবেন….!

শনিদেবের সুপ্রভাবের ইঙ্গিত

খারাপ কাজ করলে বা মনে কাউকে ক্ষতি করার চিন্তা ভাবনা থাকলে, জেনে রাখবেন শনিদেব অত্যন্ত নির্দয় হবেন আপনার প্রতি। এসব কাজ মোটেই বরদাস্ত করেন না শনি মহারাজ। তাঁর শুভ দৃষ্টি আপনার জন্মছকে থাকলে, লক্ষ্য করে দেখবেন, আপনাকে কোনও সমস্যায় পড়তে হবে না। এইরকম জাতকের মন অত্যন্ত নরম প্রকৃতির হয়ে থাকে। তাঁরা দয়ালু হন। অত্যন্ত পরোপকারী হয়ে থাকেন তাঁরা। বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজে অংশগ্রহণ করে থাকেন শনির সুনজরে থাকা জাতক বা জাতিকারা। এই শ্রেণীর জাতক বা জাতিকাদের হাতের নখ সাধারণত চকচকে হয়ে থাকে। সুন্দর একটা গড়ন থাকে শরীরের। তাছাড়া মাথায় এক ঢাল চুল থাকে তাদের। সাধারণত রুক্ষ চুল তাদের থাকে না। ।

শনিদেবের কুপ্রভাবের ইঙ্গিত

প্রথমেই দেখতে হবে জাতক বা জাতিকাদের মাথার চুল খসখসে, চুল পড়েও যেতে পারে এই রকম জাতক বা জাতিকাদের। হাতের নখ বার বার ভেঙে যাওয়ার প্রবণতা থাকে এদের। তাছাড়া গা-হাত-পা অত্যন্ত নোংরা হয়। বাড়িতে আগুনের ভয় থাকে। কারও বাড়িতে ছোট খাটো আগুন লাগলে, ধরে নিতে পারেন আপনার জীবনে শনিদেবের কুপ্রভাব পড়েছে। এমনকি বাড়ির বিভিন্ন জায়গা বা গোটা বাড়িটাও ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ঋণের দায়ে জর্জরিত হয়ে থাকেন এই শ্রেণীর জাতক জাতিকারা। ব্যবসায় দেখা দিতে পারে মন্দাভাব। চাকরিস্থলে মতান্তর। এমনকি চাকরি খোয়াতেও হতে পারে এই শ্রেণীর জাতক-জাতিকাদের।

শনিদেবের বীজমন্ত্র জপ করতে পারেন।

বীজমন্ত্র-

ঔঁ ঐং হ্রীং শ্রীং শনৈশ্চরায়

গায়ত্রী মন্ত্র–

মং মন্দায় বিদ্মহে সূর্যপুত্রায় ধিমহী,

তন্মো মন্দ প্রচোদয়াৎ