Date : 2024-05-26

মালদহে প্রাথমিকে ২৫০ জন শিক্ষককে নিয়োগের নির্দেশ দিল বিচারপতি রাজা শেখর মান্থার সিঙ্গল বেঞ্চ।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়,সাংবাদিক ঃ এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে চাকরি হারাদের নিয়ে সর্বত্র চর্চা অব্যাহত। ইতিমধ্যেই কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশ চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে রাজ্য এবং এস এস সি। এর মাঝেই ফের এবার খুশির খবর শোনালো হাইকোর্ট। উত্তর ২৪ পরগনার পর এবার মালদহে প্রাথমিকে ২৫০ জন শিক্ষককে নিয়োগের নির্দেশ দিল বিচারপতি রাজা শেখর মান্থার সিঙ্গল বেঞ্চ।
২০০৯ সালে বাম আমলে মোট চারটি জেলা মালদা, উত্তর ২৪ পরগনা, মালদহ ও হাওড়ায় নিয়োগ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। যদিও ক্ষমতায় আসার পর স্বজন পোষণের অভিযোগে সেই প্যানেল বাতিল করে বর্তমান তৃণমূল সরকার। পরে ২০১৫ সালে ফের লিখিত পরীক্ষা হয়।কিন্তু তাতেও দুর্নীতির অভিযোগে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন বেশ কিছু প্রার্থী। যার জেরে নিয়োগ প্রক্রিয়া আটকে যায়। শেষ পর্যন্ত বিষয়টি সুপ্রিম কোর্ট হয়ে ফের হাইকোর্টেই ফেরত আসে। ২০১৫ সালে প্যানেল তৈরি হয়ে গেলেও মামলার গেরোয় নিয়োগ বছরের পর বছর আটকে ছিল। অবশেষে বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী ২০২১ সালে প্যানেল প্রকাশ করতে নির্দেশ দেন। বিচারপতি চক্রবর্তীর বেঞ্চ জানায় শূণ্যপদের নিরিখে প্যানেল প্রকাশ করতে হবে।
কিন্তু তারপরও দুর্নীতির অভিযোগ কিছু ছাড়েনি। অভিযোগ ছিল যারা বেশি নম্বর পেয়েছেন, তাদের প্যানেলে জায়গা হয়নি। সব পক্ষের সওয়াল জবাব শুনে বৃহস্পতিবার সেই মামলারই নিষ্পত্তি করলেন বিচারপতি রাজা শেখর মান্থা। নির্দেশে বিচারপতি জানিয়েছেন চলতি বছরের 25 এপ্রিলের আগে যারা আবেদন জানিয়েছিলেন অর্থাৎ ২৫০ জনকে দুমাসের মধ্যে নিয়োগ দিতে হবে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদকে এই নির্দেশ কার্যকর করতে হবে।
গতকাল উত্তর ২৪ পরগনার মোট ৮৬৭ জন শিক্ষককে আগামী দু মাসের মধ্যে নিয়োগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি মান্থা। এছাড়াও কয়েকদিন আগে হাওড়া জেলাতে ও প্রাথমিক নিয়োগে প্রায় ৪০০ জন শিক্ষককে নিয়োগ করার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা।

আরো পড়ুন: সারা দেশে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত কোথায় কত ভোট পড়লো