Date : 2024-05-26

নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ নিয়ে মোদী , রাহুলকে সতর্ক করলো কমিশন

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক ঃ নির্বাচনী প্রচারে বিপক্ষ দল বা প্রার্থীর বিরুদ্ধে অশালীন ভাষা প্রয়োগের অভিযোগে দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলকে সতর্ক করলো নির্বাচন কমিশন। বিজেপি ও কংগ্রেস সভাপতিকে চিঠি দিয়ে সংযত থাকার বার্তা দেওয়া হলো কমিশনের পক্ষ থেকে। দুই দলের‌ই তারকা প্রচারকরা যাতে আদর্শ আচরণবিধি মেনে চলেন, স্মরণ করিয়ে দেওয়া হলো সে কথাও।

নির্বাচনী প্রচারে এক পক্ষ অন্য পক্ষকে আক্রমণ করার সময় কোনও আচরণবিধি মানছেন না। এই বিষয়ে দেশের প্রায় প্রতিটি রাজনৈতিক দল‌ই কমবেশি দায়ী। প্রচার পর্বে অন্যকে আক্রমণ করার সময় আদর্শ আচরণবিধির ধার ধারছেন না অনেকেই। ব্যবহার করছেন অশালীন ভাষা, করছেন জাতিগত বিদ্বেষ মূলক মন্তব্য। এই বিষয়ে প্রায় প্রতিদিনই গুচ্ছের অভিযোগ জমা পড়ছে কমিশনের দফতরে। সম্প্রতি বিজেপির পক্ষ থেকে কমিশনে অভিযোগ জানানো হয়েছে যে রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে সম্মানহানিকর মন্তব্য করেছেন। উদাহরণ দিয়ে বিজেপি অভিযোগ করেছেন, কেরালার কোট্টায়াম বা তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুরের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী কে উদ্দেশ্য করে যে ভাষণ দিয়েছেন তা আদর্শ আচরণবিধির পরিপন্থী। আবার কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে বলা হয়েছে, রাজস্থানের বানস‌ওয়াড়ার জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেস কে উদ্দেশ্য করে যে বক্তব্য রেখেছেন তা শুধু মিথ্যা নয়, তাতে আচরণবিধির কোন‌ও তোয়াক্কা করা হয় নি। কংগ্রেসের পাশাপাশি সিপিআই ও সিপিআই(এম-এল)-র পক্ষ থেকেও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জাতিবিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

কংগ্রেস ও বিজেপি, দুই জাতীয় দলকেই চিঠি দিয়ে কমিশন লিখেছে কোন দলের তারকা প্রচারক কে হবেন সেটা সেই দল‌ই ঠিক করে। কিন্তু তারকা প্রচারকরা যখন কোনো সভায় ভাষণ দিচ্ছেন, তখন তাঁদের খেয়াল রাখা উচিত যে তাঁদের সেই বক্তব্য সারা দেশের সাধারণ মানুষ শুনছেন। সেক্ষেত্রে তারকা প্রচারকরাই যদি ভাষণের সময় শালীনতা বজায় না রাখেন, আদর্শ আচরণবিধির কথা মাথায় না রাখেন, তাহলে সেটা কখনোই কাম্য নয়। এই কারণে কমিশনের পক্ষ থেকে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা ও কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি মল্লিকার্জুন খড়গে কে চিঠি দেওয়া হয়েছে যাতে তাঁরা তাঁদের তারকা প্রচারকদের এই বিষয়টি অবহিত করে দেয়।