Date : 2024-05-26

“দিদির দশ শপথ”। কিসের জন্য এই দশ শপথ নিচ্ছেন দিদি !

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক ঃ লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফার নির্বাচনের আগেই দশটি শপথ নিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে তাঁর এই শপথ এলো নির্বাচনী ইস্তেহারের মাধ্যমে। বুধবার তৃণমূল ভবনে প্রেস কনফারেন্স করে এই শপথের কথা জানানো হয়েছে।

লোকসভা ভোটের প্রচারে একদিকে যখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বারবার সামনে নিয়ে আসছেন ‘মোদীর গ্যারান্টি’ শব্দ দুটিকে, ঠিক তখন তাকে কাউন্টার করে তৃণমূল বলছে ‘দিদির গ্যারান্টি’-র কথা। এবার সেই দিদির গ্যারান্টিকেই নির্বাচনী ইস্তেহারের আকারে ‘দিদির দশ শপথ’ নামে সামনে নিয়ে এলো তৃণমূল কংগ্রেস। কি রয়েছে এই শপথে ?

অসংগঠিত শ্রমিকদের পাশাপাশি সমস্ত জব কার্ড হোল্ডারদের কাজের গ্যারান্টি দিতে দিদির প্রথম শপথ ‘বর্ধিত আয়, শ্রমিকের সহায়। দ্বিতীয় শপথ, ‘দেশ জুড়ে বাড়ি , হবে সবারই’। এক্ষেত্রে বিপিএল তালিকায় থাকা দেশের সবার জন্য বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় দূর্নীতি অভিযোগ রয়েছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে, সেখানে সবার জন্য বাড়ি তৈরির এই প্রতিশ্রুতি সম্ভবতঃ সেই অভিযোগকে খন্ডানোর প্রচেষ্টা। তৃতীয় শপথে আবার কেন্দ্রের বর্তমান ‘উজালা’ যোজনাকে আরও লোভনীয় করে তোলার চেষ্টা। ইস্তেহারে বলা হয়েছে বিপিএল তালিকাভুক্ত সকল পরিবারের জন্য বছরে দশটি করে রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার দেওয়া হবে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

এই বিষয়ে ইস্তাহার প্রকাশ করার সময় রাজ্যের প্রাক্তণ অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র কেন্দ্রের উজালা যোজনাকে আক্রমণ করে বলেন, এই যোজনায় সিলিন্ডার নেওয়ার সময় আগে তার দাম দিয়ে দিতে হয়। পরে হয়তো কিছু সাবসিডি পাওয়া যায়। কিন্তু তৃণমূলের প্রস্তাবিত প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সবাইকে বিনামূল্যে এই গ্যাস সিলিন্ডার দেওয়া হবে। তিনি আরও বলেন, সার্ভে রিপোর্ট অনুযায়ী বিনামূল্যে দেওয়া হলে সেই সিলিন্ডার নেওয়ার দিকে মহিলারা বেশি আকৃষ্ট হবেন। এছাড়া বাংলার ‘লক্ষীর ভান্ডার’ এর মতো সারা দেশেই মহিলাদের সশক্তিকরণে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে। পাশাপাশি কেন্দ্রের ‘আয়ুষ্মাণ ভারত’ প্রকল্পের পাল্টা হিসাবে নতুন স্বাস্থ্য পরিষেবা সংক্রান্ত প্রকল্প আনা হবে যেখানে পাঁচ লক্ষ টাকার বদলে দশ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসা বীমার সহায়তা দেওয়া হবে বলে দাবি করা হয়েছে ইস্তাহারে। এছাড়া ইস্তাহারে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কোনোভাবেই ‘ইউনিফায়েড সিভিল কোড’ ভারত জুড়ে চালু করা হবে না।

তবে এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভার নেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘ইন্ডিয়া’ জোট ক্ষমতায় এলে জোটের অন্যতম অংশীদার হিসাবে তৃণমূল কংগ্রেস এই নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। ‘ইন্ডিয়া’ জোটের কথা বলে ইস্তাহার প্রকাশ করলেও এখনো পর্যন্ত অবশ্য সেই জোটের কোনো ‘কমন মিনিমাম প্রোগ্রাম’ বা অভিন্ন ন্যূনতম কর্মসূচি-র কথা এখনও প্রকাশ্যে আসে নি। ফলে ‘ইন্ডিয়া’ জোট নিয়ে একটা ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে বলে মত অনেকের।