Date : 2024-05-26

বৈশাখী দহনে নাজেহাল রাজ্যবাসী

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : বৈশাখী দহনে নাজেহাল রাজ্যবাসী। ভোর হতে না হতেই চড়ছে অসহনীয় রোদ। সেই সঙ্গে রয়েছে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি। চলতি মরশুমে এই প্রথম শহর কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি পার করল। বুধবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৪ডিগ্রি। সেই সঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ইতিমধ্যেই সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি পার করেছে। চলতি মরশুমে এই প্রথম শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি পার করল। সেই সঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ইতিমধ্যেই সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি পার করেছে। মঙ্গলবার শহরের তাপমাত্রা ছিল ৩৮.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবার দুই বর্ধমান, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া,দুই মেদিনীপুর, বীরভূম, দুই ২৪ পরগণায় তাপপ্রবাহ পরিবেশ তৈরি হয়।

দক্ষিণবঙ্গ যেখানে বৈশাখী দহনে পুড়ছে। অন্যদিকে কিছুটা মনোরম পরিবেশ উত্তরবঙ্গে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। সঙ্গে বইবে ৩০-৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া। বৃষ্টির ফলে দক্ষিণবঙ্গের তুলনায় তাপমাত্রার পারদ উত্তরবঙ্গে কিছুটা নিম্নমুখী থাকবে। অন্যদিকে দক্ষিণ বঙ্গের কলকাতা সহ অন্যান্য জেলা গুলিতে তাপমাত্রার পারদ আরো আগামী কয়েক দিন আপনার তো আর পারো দুই থেকে তিন দিক দিয়ে আরো বাড়তে পারে বলেই মত আবহাবিদের সঙ্গে বজায় থাকবে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি। তাই চিকিৎসকদের পরামর্শ বেলা ১১ টা থেকে বিকেল চারটে পর্যন্ত প্রয়োজন ছাড়া যেন কেউ বাড়ির বাইরে না বের হন। প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে বেরোতে হলে ছাতা, সানগ্লাস ও ওআরএস সঙ্গে রাখার পরামর্শও দিচ্ছেন তারা।