Date : 2024-05-26

ভোটার কার্ড নেই ! চিন্তা নেই। দেখে নিন কোন কার্ড থাকলেই ভোট দিতে পারবেন।

সঞ্জু সুর, সাংসাদিকঃ শুধুমাত্র ভোটার কার্ড থাকলেই আপনি ভোট দিতে পারবেন, ভোটার কার্ড না থাকলে পারবেন না, এমন ভাবার কোনো কারণ নেই। যাদের ভোটার কার্ড হারিয়ে গেছে, নষ্ট হয়ে গেছে বা খুঁজে পাচ্ছেন না, তারাও যাতে ভোট দিতে পারেন তার ব্যবস্থা করেছে নির্বাচন কমিশন। ভোটার কার্ড ছাড়াও আরও বারো ধরনের কার্ড বা সচিত্র পরিচয় পত্র থাকলেই আপনি ভোট দিতে পারবেন।

আমাদের রাজ্যের প্রায় ৭ কোটি ৫৯ লক্ষ ভোটারের প্রত্যেকের‌ই ভোটার কার্ড রয়েছে। অন্তত নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে তারা একশো শতাংশ ভোটারের হাতেই ভোটার কার্ড (EPIC) পৌঁছে দিয়েছে। অনেকেই মনে করেন ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রে এই ভোটার কার্ড থাকা বাধ্যতামূলক। এমনটা কিন্তু নয়।

ভোটার কার্ড থাকলে ভালো, কিন্তু যদি তা না থাকে, তাহলেও তাঁরা যাতে ভোট দিতে পারেন তার জন্য EPIC ছাড়া আরও বারোটি কার্ড বা সচিত্র পরিচয় পত্র দেখালেই ভোট দিতে পারবেন। এগুলো হলো, ১) আধার কার্ড, ২) প্যান কার্ড, ৩) ড্রাইভিং লাইসেন্স, ৪) রেশন কার্ড, ৫) ব্যাংক বা পোষ্ট অফিসের সচিত্র পাস বুক, ৬) একশো দিনের জব কার্ড, ৭) শ্রম দফতর থেকে দেওয়া স্বাস্থ্য বীমার সচিত্র পরিচয় পত্র, ৮) কেন্দ্র বা রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সচিত্র পরিচয় পত্র, ৯) ভারতীয় পাসপোর্ট, ১০) পেনশন সংক্রান্ত সচিত্র তথ্য সম্বলিত কাগজ, ১১) সাংসদ, বিধায়ক বা বিধান পরিষদের সদস্যের দেওয়া সরকারি পরিচয় পত্র, ১২) ভারত সরকারের সামাজিক সুরক্ষা দফতরের থেকে দেওয়া বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্নদের প্রদেয় পরিচয় পত্র প্রভৃতি।

এইসব কার্ডের যে কোনো একটি নিয়ে গিয়েও কোনো ভোটার তাঁর ভোট দিতে পারবেন। এই বিষয়ে রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক অরিন্দম নিয়োগী জানিয়েছেন, “প্রতিটি বুথের বা ভোট গ্রহণ কেন্দ্রের বাইরে এই তালিকা টাঙিয়ে রাখা থাকবে যাতে কোন‌ও ভোটারের বুঝতে অসুবিধা না হয়।” শুক্রবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দফতরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি আরও জানান, রাজ্যে আগামী ১৯ তারিখ যে তিনটি কেন্দ্রে নির্বাচন রয়েছে সেখানে মোট ৪২৮ টি সম্পূর্ণ মহিলা পরিচালিত বুথ থাকছে।

এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি ২৩০ টি মহিলা পরিচালিত বুথ থাকছে আলিপুরদুয়ার কেন্দ্রে। জলপাইগুড়িতে থাকছে ১৩৮ টি মহিলা পরিচালিত বুথ ও কোচবিহারে ৬০ টি মহিলা পরিচালিত বুথ থাকছে। প্রথম পর্বের তিনটি কেন্দ্রের সব বুথেই কেন্দ্রিয় বাহিনী থাকবে কি না সেই প্রশ্নে তিনি জানান, এমনটা আশা করা যাচ্ছে। এদিকে কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শুক্রবার পর্যন্ত মোট ২৪১ টি বেআইনি অস্ত্র ও ২৭৬ টি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি বোমা উদ্ধার হয়েছে ৭১৫ টি।