Date : 2024-05-26

LokSabha Election 2024 : প্রথম দফার নির্বাচনে প্রথম স্থানে ত্রিপুরা। শেষ স্থানে বিহার। কিন্তু কিসের ভিত্তিতে !

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে প্রথম দফায় সারা দেশের ১৭ টি রাজ্য ও ৪ টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মিলিয়ে মোট ১০২ টি আসনে ভোট হলো শুক্রবার। এই ভোটে ভোট দানের শতাংশের হারে প্রথম স্থানে রয়েছে ত্রিপুরা। আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। সবচেয়ে কম ভোট পড়েছে বিহারে। এই ১০২ টি আসনে দিনের শেষে কোন রাজ্যে কত শতাংশ ভোট পড়লো তা এক নজরে দেখে নিন।

জাতীয় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রথম দফার নির্বাচনে ভোটের যে সম্ভাব্য শতাংশের হার প্রকাশ করা হয়েছে (শনিবার দুপুর ১.৩০ পর্যন্ত) সেই তালিকা অনুযায়ী প্রথম স্থানে রয়েছে ত্রিপুরা। ত্রিপুরায় মোট দুটি লোকসভা আসন রয়েছে।‌ তারমধ্যে ১৯ তারিখ প্রথম দফায় একটি আসনে ভোট নেওয়া হয়। আসনটি হলো ত্রিপুরা পশ্চিম। এই কেন্দ্রে শুক্রবার মোট ভোট পড়েছে প্রায় ৮১.৬২ শতাংশ। যদিও এই আসনের ভোট নিয়ে ছাপ্পা, রিগিং, ভোট লুট সহ একাধিক অভিযোগ জানিয়েছে বিরোধীরা। শতাংশের হারে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। আমাদের রাজ্যের তিনটি আসন মিলিয়ে মোট ভোটের হার প্রায় ৮১.৩০ শতাংশ। যে তিনটি আসনে শুক্রবার ভোট হয়েছে তারমধ্যে সবচেয়ে বেশি ৮৩.৬৬ শতাংশ ভোট পড়েছে জলপাইগুড়ি কেন্দ্রে। দ্বিতীয় কোচবিহার কেন্দ্রে ভোটের হার ৮২.১৭ শতাংশ। প্রসঙ্গত কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এই কেন্দ্রে‌ই ভোটের দিন সবচেয়ে বেশি গন্ডগোল হয়েছে।আলিপুরদুয়ার কেন্দ্রের ভোটের হার অপেক্ষাকৃত কম। এখানে ভোট পড়েছে ৭৭.৮৪ শতাংশ। যা ২০১৯ এর তুলনায় প্রায় ৬ শতাংশ কম। সার্বিকভাবে উত্তরবঙ্গের এই তিন আসনে ২০১৯ এর তুলনায় কিছুটা কম‌ই ভোট পড়েছে, যা চিন্তায় রাখবে রাজনৈতিক দলগুলোকে।

এবার দেখে নি দেশের বাকি রাজ্যের কোথায় কত ভোট পড়লো।

১) আন্দামান ও নিকোবর-৬৩.৯৯ শতাংশ
২) অরুনাচল প্রদেশ -৭২.৭৪ শতাংশ
৩) অসম -৭৫.৯৫ শতাংশ
৪) বিহার -৪৮.৮৮ শতাংশ। শুক্রবার বিহারের চারটি আসনে নির্বাচন ছিলো। ঔরঙ্গাবাদ, গয়া, জামুই ও ন‌ওয়াদা। বিহারে এত কম ভোট পড়া নিয়ে কিছুটা চিন্তিত নির্বাচন কমিশন। গরম একটা ফ্যাক্টর ছিলোই, কিন্তু তা সত্ত্বেও ভোটের হার ৫০ শতাংশ পার না হ‌ওয়াটা কি ভোটারদের অনীহা, না কি অন্য কিছু, তার খোঁজে রয়েছে কমিশন। জাতীয় নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যেই চেষ্টা শুরু করেছে যাতে পরবর্তী দফাতে বিহারে সার্বিক ভোটের হার বাড়ানো যায়।
৫) ছত্তিশগড় -৬৭.৫৬ শতাংশ
৬) জম্মু ও কাশ্মীর -৬৮.২৭ শতাংশ
৭) লাক্ষাদ্বীপ -৮৩.৮৮ শতাংশ
৮) মধ্যপ্রদেশ -৬৭.০৮শতাংশ
৯) মহারাষ্ট্র -৬১.৮৭ শতাংশ
১০) মনিপুর -৭২.১৭ শতাংশ
১১) মেঘালয় -৭৪.৫০ শতাংশ
১২) মিজোরাম -৫৬.৬০ শতাংশ
১৩) নাগাল্যান্ড -৫৬.৯১ শতাংশ
১৪) পন্ডিচেরী -৭৮.৮০ শতাংশ
১৫) রাজস্থান -৫৭.২৬ শতাংশ
১৬) সিকিম -৮০.০৩ শতাংশ
১৭) তামিলনাড়ু -৬৯.৪৬ শতাংশ
১৮) উত্তরপ্রদেশ -৬০.২৫ শতাংশ
১৯) উত্তরাখণ্ড -৫৫.৮৯ শতাংশ