Date : 2020-10-29

সোশ্যাল মিডিয়ায় মিমি-নুসরতকে আক্রমণ, গ্রেফতার যুবক

কলকাতা: প্রতিবারের মতো এবারেও তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় বড় চমক। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী এবং নুসরত জাহান।

কিন্তু প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই সোশ্যাল মিডিয়া ছেয়ে গিয়েছে মিমি ও নুসরতকে নিয়ে কুরুচিকর ট্রোল, মিম- এ।

পরিবেশনের গুণে শুটকি মাছের গন্ধটাই উবে গেছে…

ব্যক্তিগত জীবন থেকে খোলামেলা পোশাকে তাদের ছবি নিয়ে ব্যঙ্গ সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন মুখরোচক বিষয়।

কেউ কেউ তাদের চরিত্র এবং ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে প্রকাশ্যে আক্রমণ করেন।

যদিও নির্বাচনী বিধি লাগু হতেই তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রক সোশ্যাল মিডিয়ায় সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে। বিশেষ পর্যবেক্ষক কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

সেন্ট্রাল ফোর্সের রাজারহাটে রুট মার্চ

পর্যবেক্ষনের জন্য থাকছেন গ্রিভান্স অফিসার।

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে বিতর্কিত পোস্ট বা মন্তব্য করলে তা ডিলিট করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

এমনকি তথ্য প্রযুক্তি আইন অনুসারে গ্রেফতার করা হতে পারে পোস্টদাতাকে।

কিন্তু বিধি ও সতর্কীকরণ সত্ত্বেও টলিউডের এই দুই প্রার্থী অভিনেত্রীকে নিয়ে চূড়ান্ত অশ্লীলতা চলছেই।

অশ্লীল ট্রোলের বিরুদ্ধে সরব হয়ে সোশ্যাল মিডিয়া এখন দ্বি-বিভক্ত।

এদিকে ট্রোলিং নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ। ফেসবুকে এই সম্পর্কে তিনি লেখেন, “খুব হাসি পাচ্ছে। বিদেশ বাদ দিলেও এদেশে ফিল্ম জীবিকার লোকজনের ভোটে দাঁড়ানো বা ভোটে জিতে দেশ বা রাজ্যের মন্ত্রীত্ব সামলানো নতুন নয়!! তার পরেও মিমি আর নুসরত ভোটে দাঁড়াবার পর কিছু লোকজনের হাসাহাসি দেখে খুব হাসি পাচ্ছে!!”

অন্যদিকে একাংশ সমর্থন করছেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সিদ্ধান্তকে।

যদিও অভিনয় জগৎ থেকে রাজনীতিতে আসা নতুন বিষয় নয়। এর আগে মুনমুন সেন, সন্ধ্যা রায়, লকেট চট্টোপাধ্যায় বা শতাব্দী রায় অভিনয় জগত থেকে রাজনীতির আঙিনায় পা রেখেছেন। ট্রোলিংয়ের হাত থেকে রেহাই পাননি কেউই।

তবে তা এমন মাত্রাছাড়া ছিল না। পরিস্থিতি বুঝে এবার নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে।

“স্পর্শকাতর” ইস্যুতে কমিশনে চাপের মুখে বিরোধীরা

ইতিমধ্যে বসিরহাটের তৃণমূল প্রার্থীকে নিয়ে কুরুচিকর পোস্ট করার জন্য গ্রেফতার করা হয়েছে এক যুবককে। তন্ময় বালা নামে ওই যুবকের বাড়ি চাঁদপারা এলাকায়।

এখানেই শেষ নয়, এই ধরনের বিতর্কিত পোস্টদাতাদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যাদবপুরের প্রার্থী মিমি চক্রবর্তীকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলিং সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তিনি কৌতুক করে উত্তর দেন, ” মিমি নাম থেকে শেষ ‘ই’ বাদ দিলে মিম হয়।”

October 11, 2020, 7:49 am

October 11, 2020, 7:32 am

October 11, 2020, 5:22 am