Date : 2019-07-23

দুই খুদে খদ্দেরের গলা, ধড় কেটে পুঁতে দিল দোকানদার…

ওয়েব ডেস্ক: দুই শিশুর ধড় ও মুন্ডু আলাদা করে খুন করল সুনিল ওঁড়াও নামক এক দোকানদার।

খুন করে সেই অংশগুলি পুঁতে রাখল তার দোকানে পাশেই। বুধবারে এই ঘটনার সম্মুখিন হল ঝাড়খন্ডের সামেরহাট গ্রাম। তবে খুনের কথা স্বীকার করেছে ওই দোকানদার।

বুধবার রাতে কিছু জিনিস কিনতে ১০ বছরের একটি মেয়ে যায়। তার কিছুক্ষণপরই দোকানটিতে যায় একটি ১১ বছরের কিশোর। সেই সময় দোকানে কেউই ছিল না।

ওই দোকানদার দুজনকেই ভুলিয়ে দোকানেরস পিছনে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানেই একটি কুড়ুল নিয়ে দুজনেরই ধড় থেকে মাথা আলাদা করে খুন করে। পরে তাদের দেহগুলি পুঁতে রাখে দোকানের কাছেই জড়ো করা বালির নীচে।

আরও পড়ুন : মুভি রিভিউ – সুপার 30…

আর মাথাগুলি রাখে ওই জায়গা থেকে একটু দূরে। অনেক রাত হয়ে যাওয়ার পরেও দুটো বাচ্চার কেউই বাড়ি না ফিরলে তাদের পরিবার দ্বারস্থ হন পুলিশের। পুলিশের তদন্তে প্রথমেই সন্দেহ হয় ওই ব্যক্তিকে।

#Newsrplus_Crime_Yard

৩ বছরের সর্ম্পকের পরেও ভেঙে গেল স্বপ্ন, বেকার ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিতে নারাজ প্রেমিকার পরিবার,প্রেমিকার বাবার ঘুসিতে মৃত্যু প্রেমিকের, পাণ্ডুয়ার মহাদেবপুরে তুমুল উত্তেজনা, দেখুন "রক্তাক্ত ভালবাসা" শুধুমাত্র ক্রাইম ইয়ার্ডে। রবিবার রাত ১০ টায়।

Posted by RPLUS News on Friday, July 12, 2019

গ্রেফতারের কথা বুঝতে পেরে পালানোরও চেষ্টা করে সে। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতেই পাচখেরি চক থেকে পুলিশের হাতে ধরা পরে সেই দোকানদার।

পুলিশের কাছে খুনের কথা স্বীকার করেছে ধৃত ব্যক্তি। উদ্ধার হয় কুড়ুলটিও। প্রথমে তদন্তকারীদের নরবলি বা ব্ল্যাক ম্যাজিকের ব্যাপার বলে মনে হলেও পরে সেই ভ্রান্তি কাটে।

#Newsrplus_Simante Pachar

সীমান্ত দিয়ে অবাধে গরুপাচার। কিভাবে চলছে ? কেমন ভাবে হচ্ছে এই কাজ ? জানতে চোখ রাখুন Rplus নিউজে।দেখুন বিশেষ অনুষ্ঠান 'সীমান্তে পাচার' আজ দিনভর।

Posted by RPLUS News on Saturday, July 13, 2019

ঝাড়খণ্ড পুলিশের এক কর্তা জানিয়েছেন, হাসপাতালে ধৃতের শারীরিক পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে সে মানসিক ভারসাম্যহীন। ওই দোকানদার আগেও ২০০৯ সালে বিষয়-সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদে নিজের কাকা এবং আর এক আত্মীয়কে খুন করেছিল। পরে জামিনে মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরেছিল।