Date : 2019-11-18

বৈধ কাগজ নেই, ভিটে-মাটি হারানোর আতঙ্কে আত্মঘাতী যুবক…

জলপাইগুড়ি: অসমে এনআরসি-র চূড়ান্ত তালিকা থেকে ১৯ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়ার পরেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে এই রাজ্যে। রাজ্যে এন আর সি চালু করা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া বার্তা দিয়েছেন কেন্দ্রকে। এরপরেও কাটছে না আশঙ্কা। বিশেষ করে বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী অঞ্চলগুলিতে আতঙ্কিত হয়ে আত্মহত্যা করে ফেলছেন অনেকে। এবার আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়িতে। পরিবারের দাবি, পৈত্রিক জমির না পেয়ে ৪২ বছরের এক ব্যক্তি আত্মঘাতী হয়েছেন। সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন : কাউন্সিলরের উদ্যোগে কালনার যৌনপল্লিতে প্রথম শারদ আনন্দ

বেশ কিছু টাকা ঋণও করেছিলেন তিনি। পৈত্রিক ভিটের কাগজ না পেলে সর্বশান্ত হবেন, এমন আশঙ্কায় আত্মহত্যার পথ বেছে নেন ওই ব্যক্তি। এলাকার মানুষের দাবি, বেশ কিছুদিন ধরে সরকারি দফতরে নথি সংশোধনের জন্য ছুটে যাচ্ছেন মানুষ। সেই সময়ই নথিপত্র খুঁজে না পেয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। পরিবারের তরফে তাকে বার বার বোঝানো হলেও চিন্তা দূর হয়নি তার। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির কাছেই রেল ক্রসিংয়ের গেটে গলায় দড়ি দেওয়া অবস্থায় দেখা যায়। তবে এখনও পর্যন্ত মৃতব্যক্তির কোন সুইসাইড নোট পাওয়া যায়নি। ঘটনাটি নিছক আত্মহত্যাই কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।