Date : 2019-10-17

করতারপুর করিডোর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ মনমোহন সিং-কে….

ওয়েব ডেস্ক: গুরু নানকের ৫০০ তম আবির্ভাব দিবস হিসাবে করতারপুর করিডোর উদ্বোধনে যাচ্ছেন মনমোহন সিং। আগামী নভেম্বর মাসেই গুরুনানকের জন্মতিথি উপলক্ষ্যে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিং। ৯ নভেম্বর করতারপুর করিডোর উদ্বোধনে যাওয়ার কথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর। গুরুনানকের জন্মদিন উপলক্ষ্যে ওইদিন উপস্থিত থাকবেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীও। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য বৃহস্পতিবার আমন্ত্রণ জানানো হবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও। শুক্রবার মনমোহন সিং-কে পাক বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে মনমোহন সিংকে শিখ প্রতিনিধিত্ব করার জন্য আমন্ত্রণ জানানোর কথা শোনা যায়।

পাক বিদেশ মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেসি জানিয়েছেন, “শিখ প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকেই আহ্বান জানানো হবে। আনুষ্ঠানিকভাবে ওনাকে আমন্ত্রণ পাঠাবে পাকিস্তান।” এই মুহুর্তে পাকিস্তান ও ভারতের সম্পর্ক তলানিতে ঠেকেছে। সেই অবস্থায় করতারপুর করিডোর উদ্বোধন দুই দেশের পক্ষেই টেনশনের। তবে এত কিছুর মধ্যেও দুই দেশের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানের জন্য চলছে জোর কদমে প্রস্তুতি।

আরও পড়ুন : ভাষার ব্যবহার নিয়ে অমিত শাহের বিরোধীতায় রজনীকান্ত,কমল হাসান

জীবনের শেষ ১৮ বছর কারতরপুরে কাটিয়েছেন গুরুনানক।বর্তমান জায়গাটি পাকিস্তানের নারোয়াল জেলার অন্তর্গত। পঞ্জাবের গুরুদাসপুরের ডেরা বাবা নানকের গুরুদ্বার থেকে করতারপুরের দূরত্ব প্রায় ৪ কিলোমিটার। করতারপুর করিডর দুটি জায়গার সংযোগ পথ হতে চলেছে। শিখদের অত্যন্ত পবিত্র স্থান হিসাবে বিবেচিত হয় এই কারতারপুর করিডোর। স্বাধীনতার আগে ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর পরিবার থাকত পাকিস্তানের পঞ্জাবে। তাই পাকিস্তানে শিখদের পরিবারের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে।