Date : 2019-11-18

পুজো ইনিংসের “মেগা ইভেন্ট”-এর অপেক্ষায় রেড রোড, বাধ সাধছে বৃষ্টি…

কলকাতা: বিজয়া দশমী কেটে গিয়েছে দিন দুয়েক আগেই, তবে উৎসবের শেষ পাতের মিঠাই এখনও বাকি রয়েছে। হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন, রেড রোডে প্রতিবছরের মতো এবারেও আয়োজন করা হয়েছে বিসর্জন কার্নিভালের। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে মোট ৮০ টি বাছাই করা পুজো নিয়ে কলকাতার এই মেগা ইভেন্ট হবে আগামীকাল ১১ অক্টোবর। তবে সবকিছু ঠিক থাকলেও বাধ সেধেছে আবহাওয়া। উমা বিদায় নিলেও বিদায় নিতে চাইছে না বর্ষা। একাদশীর দুপুরে সাদা হয়ে নেমেছিল বৃষ্টি। আর তাতেই ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে রেড রোডে কার্নিভালের প্রস্তুতি। বেশ কিছু জায়গায় কাদা হয়েছে। দুই ধারে মঞ্চের কাপড় বেয়ে চুইয়ে পড়ছে জল।

পুজো শেষ হতেই মুখ ভার করেছে আকাশ, যদিও আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, ২-৩ দিনের মধ্যেই উত্তরবঙ্গ থেকে ফিরে যাওয়ার কথা মৌসুমী বায়ুর। তবে দক্ষিণের পথ ১৫ অক্টোবরের আগে ভুলতে পারবে না বৃষ্টি। এদিকে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বঙ্গ সংস্কৃতি তুলে ধরার জন্য ঢেলে সাজানো হচ্ছে রেড রোড। রাস্তার দুই ধারে তৈরি হয়েছে বাংলার টেরাকোটা শিল্পের তৈরি মঞ্চ। মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপাল ও বিশিষ্ট অতিথিরা বসবেন।

আরও পড়ুন : দাম শুনে মাথায় হাত! কোজাগরীর ফর্দ দেখে নাভিশ্বাস মধ্যবিত্তের!

এছাড়া উল্টো দিকে আরও একটি মঞ্চ করা হয়ছে সেখানে থাকবেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও বিদেশী অতিথিরা। রাস্তার দুই ধারে লাইটের মধ্যমে দেখানো হবে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পগুলির বিজ্ঞাপন। এছাড়া কন্যাশ্রী, সবুজসাথী, খাদ্যসাথী, দিদিকে বলো-র বোর্ড দিয়ে সাজিয়ে তোলা হবে। ফোর্ট উইলিয়াম থেকে আকাশবাণী পর্যন্ত আলোর মালায় সেজে উঠেছে রেড রোড।

আরও পড়ুন : কার্নিভালে এবার এক টুকরো ‘রাঙা মাটির বাংলা

রয়েছে অন্যান্য অতিথি ও দর্শনার্থীদের মিলিয়ে প্রায় ৫০০০ মানুষের বসার ব্যাবস্থা থাকছে। সাধারণ মানুষের কার্নিভাল দেখার জন্য থাকছে দুটি এলইডি জায়েন্ট স্ক্রিন। বসানো হয়েছে পুলিশের ওয়াচ টাওয়ার। নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে গোটা চত্বরে নজর রাখা হবে সিসিটিভি ক্যামেরায়। এছাড়াও বাঁশের ও পুলিশের অস্থায়ী ব্যারিকেট থাকছে রাস্তার দুই ধারে। শহরের বড় বড় পুজোগুলির শোভাযাত্রার চমক দেখতে কয়েক হাজার মানুষ উপস্থিত হবেন, তবে শেষ মুহুর্তের আনন্দের সবই বরুন দেবের ইচ্ছার উপর নির্ভরশীল।