Date : 2019-11-19

ঘরের মেয়েই লক্ষ্মী, নদীয়ার বিশ্বাস বাড়িতে রূপকথার “কোজাগরী”!….

নদিয়া: কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর সন্ধ্যা, যথারীতি বিশ্বাস বাড়ির লোকজন ঠাকুর মশাইয়ের অপেক্ষায় বসেছিলেন। সময়, নির্ঘন্ট মেনে উপস্থিত হয়েছিলেন ঠাকুর মশাই। কিন্তু ঠাকুরঘরে প্রবেশ করে চক্ষু চড়কগাছ পুরোহিত মশাইয়ের। বাহ! সাক্ষাৎ মা লক্ষ্মী বসে আছেন আসনে। রক্তমাংসের একদম জীবন্ত দেবী! পরনে লাল বেনারসী, এক হাতে শক্ত করে ধরা ঝাঁপি। অন্যহাতে জ্বল জ্বল করছে পদ্মফুল। পুরোহিতকে দেখেই দেবীর মুখে একগাল হাসি, “পুজো করবে না দাদু?” জীবন্ত দেবীকে দেখে অবাক হয়ে মন্ত্র পড়তে শুরু করলেন ঠাকুর মশাই।

ছোট্ট লক্ষ্মী চুপটি করে বসে রইলেন মায়ের আদুরে লক্ষ্মী “রূপকথা”। নদিয়ার মাজদিয়া শিবনিবাসের বাড়িতে এবার আর প্রতিমা কেনার খরচ করা হয়নি। তাদের ঘরের মেয়েকেই এবার লক্ষ্মী রূপে পুজো করা হল। রূপকথার মা ঝুমাশ্রী খাঁ বিশ্বাস জানিয়েছেন, “মেয়ের জন্ম হলে মনে করা হয় ঘরে লক্ষ্মী এসেছে। নারী শক্তি তো দেবী। ওই তো আমার ঘরের লক্ষ্মী।” সস্নেহে নিজের মেয়েকে পুজো দিলেন মা।

ভক্তিভরে অঞ্জলীও দিলেন। একটি নয় দুটি মেয়ে ঝুমাশ্রী দেবীর। ছোট মেয়ে সাঁঝবাতির বয়স মাত্র ২ বছর, বেশিক্ষণ বসে থাকতে পারবে না বলে তাকে এবারে পুজো না করলেও পরের বার পুজো করা হবে বলে জানান তিনি। স্বামী রমেশ শক্তিনগর উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষক। জানিয়েছেন, লক্ষ্মীরূপে মেয়েকে পুজো করার ইচ্ছা ছিল দু’জনেরই। ঘরের সুখ-সম্পদের ধন তো মেয়েরাই। দেহমন্দিরেই তো ঈশ্বরের বাস। আর শক্তির রূপ তো নারীই। শাস্ত্র মতে কুমারী অর্থাৎ অরজঃস্বলা কন্যাকে প্রকৃতি রূপে পুজো করা বিধান রয়েছে।

আরও পড়ুন : ‘লাভ অ্যাট ফার্স্ট সাইট’, কথা সত্যি করে প্রথম দেখার ৪ ঘন্টায় বিয়ে!

খবরের কাগজ ও বিভিন্ন মাধ্যমে মেয়েদের উপর অত্যাচার, কন্যাভ্রূণ হত্যার ঘটনা ঘটছে। কুমারী পুজোর মতোই নিয়ম মেনেই মায়ের বরণ, অঞ্জলি সবই হয়েছে। এতদিন বাড়ি বাড়ি মাটির প্রতিমা পুজো করে এসেছেন যে পুরোহিত, তাঁর মুখেও দেখা গেছে প্রসন্নতার হাসি। এই প্রতিমা বড়ই সরল, বড়ই সুন্দর। তাকে আবাহন করতে হয় না। ডাকলেই মিষ্টি গলায় সাড়া দেয়। পুজোর আসনে যেন কোজাগরীর জ্যোৎস্না ছড়িয়ে পড়ে। দেশে মেয়েদের বিশেষ সুবিধার জন্য চালু করা হয়েছে “বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও”। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে কন্যাশ্রী প্রকল্পে হাজার হাজার মেয়ে দেখতে পাচ্ছে শিক্ষার আলো, নিজের মেয়ের পুজো করে সেই কাজটাই এবার বাড়ি থেকে শুরু করলেন বিশ্বাস দম্পতি।