Date : 2019-11-18

ছট্ পুজোয় নিষেধজ্ঞা, জোর করে তালা ভেঙে রবীন্দ্র সরোবরে তাণ্ডব…

কলকাতা: গ্রিন ট্রাইবুনালের নির্দেশ অনুসারে জল দূষণ রোধের জন্য রবীন্দ্র সরোবরে ছট্ পুজো বন্ধ করে দেওয়া হয়। এই মর্মে কলকাতা পুরসভার তরফে নোটিস জারি করে বলা হয় রবীন্দ্র সরোবর শুক্রবার থেকে রবিবার পর্যন্ত বন্ধ করে দেওয়া হবে। সেই নির্দেশকে তোয়াক্কা না করেই শনিবার সকালে রবীন্দ্র সরোবরের তিন নম্বর গেটের তালা ভেঙে জবরদস্তি সরোবরের ভিতরে প্রবেশ করে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো ক্ষুব্ধ অঞ্চলের মানুষ।

পরিবেশপ্রেমীদের মত, সরোবরের বাস্তুতান্ত্রিক ভারসাম্য বজায় রাখতে ছট্ পুজো বন্ধ করা উচিত। দেদার বাজি পোড়ানোর ফলে শব্দ দূষণে প্রভাব পড়তে পারে রবীন্দ্র সরোবরে আগত পরিযায়ী পাখিদের উপর। গত বছর ছট পুজোর কারণে রবীন্দ্র সরোবরে ব্যপক দূষণ ছড়ায়। গত বছর এই ঘটনার সাক্ষী হয়েছিলেন প্রাতঃভ্রমণকারীরা।

রসগোল্লা তুমি কার? ভৌগলিক দিক থেকেও ওড়িশাকে পিছনে ফেলে দিল বাংলা

সেই কারণেই কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় রবীন্দ্র সরোবরে ছট পুজো। এরপরেই একদল দুষ্কৃতি রবীন্দ্র সরোবরের ৩ নম্বর গেটের তালা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে। প্রাতঃভ্রমণকারীরা বাধা দিতে গেলে তাদেরকে গালিগালাজ করেই সরোবরে প্রবেশ করে দুষ্কৃতিরা। আদালতের নির্দেশ অগ্রাহ্য করার সাহস কি করে পায় হামলাকারীরা সেই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও প্রত্যক্ষদর্শীদের মত, পুলিশি নিরাপত্তার শিথিলতার কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে। খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পৌঁছায় কলকাতা পুলিশ। গেটে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয় নতুন করে। নিরাপত্তার জন্য প্রতিটি গেটেই মোতায়েন করা হয় পুলিশ। তবে তালা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করার ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। পুলিশের সামনেই ছট্ পুজোর দাবীতে বিক্ষোভ চলছে রবীন্দ্র সরোবরে।