Date : 2019-12-15

মহারাষ্ট্রে জারি হতে চলেছে রাষ্ট্রপতি শাসন? সরকার গঠনের তোড়জোরের মধ্যেই জল্পনা…..

ওয়েব ডেস্ক: মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের চাপানউতোরের বাতাবরণের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হল। সরকার গঠনে সোমবার এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠক করেন শিবসেনা। বৈঠক হয় দিল্লিতে কংগ্রেস হাইকমান্ডের দফতরেও। এরমধ্যেই রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করলেন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি। মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে ইতিমধ্যেই চলছে রদ্ধশ্বাস নাটক। শিবসেনাকে সমর্থন দেওয়ার আগে এনসিপির তরফে জানানো হয়, সমর্থন পেতে গেলে শুধু বিজেপির সঙ্গ নয় বরং ছাড়তে হবে এনডিএ-র মন্ত্রীসভা। সেই মতো এনডিএ- থেকে ইস্তফা দেন শিবসেনার দুই সাংসদ। কিন্তু সোমবার শেষপর্যন্ত এনসিপিকে সরকার গঠনের জন্য আহ্বান জানান রাজ্যপাল। ফলে সরকার গঠনের জন্য তোড়জোড় শুরু করে তারা। মঙ্গলবার সাত সাড়ে আটটার মধ্যে তাদের সরকার গঠনের সিদ্ধান্তের কথা জানাতে হবে।

মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের পথে শিবসেনা! সমর্থন এনসিপি ও কংগ্রেসের

এর মধ্যেই এই ঘোষণা। সূত্রের খবর, রাজ্যে কোনও দলেরই সরকার গঠনের সম্ভাবনা দেখছেন না রাজ্যপাল। সোমবার সন্ধেয় রাজ্যপাল কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করেন উদ্ধবপুত্র আদিত্য ঠাকরে। কিন্তু সরকার গঠনের জন্য তাঁর সঙ্গে কংগ্রেস রয়েছি কিনা তার চিঠি দেখাতে পারেননি আদিত্য। তখনই এনসিপিকে ডাকেন রাজ্যপাল। তবে কংগ্রেস এনসিপি ও শিবসেনাকে আদৌ সমর্থন করবে কিনা সেই নিয়ে ইতিমধ্যে ধন্দের সৃষ্টি হয়েছে। গত রবিবার তাঁর সঙ্গে দেখা করে ফিরে আসেন শরদ পাওয়ার। আদর্শগতভাবে বিপরীত মেরুর শিবসেনাকে সমর্থন করলে তা কংগ্রেসের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করবে বলেই মনে করে রাজনৈতিক মহল। এদিকে রাজ্যপাল সরকার গঠনের জন্য শিবসেনাকে একদিন সময় দিলেও তার মধ্যে কিছুই স্থির করতে পারেনি শিবসেনা। এই কারণে আজ সন্ধ্যার মধ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হতে পারে মহারাষ্ট্রে।