Date : 2019-11-19

শবযাত্রা না শোভাযাত্রা! দাদুর মৃত্যুতে আনন্দে ডিজে বাজালো নাতিরা ….

ওয়েব ডেস্ক: তারস্বরে বাজছে ডিজে বক্স, সঙ্গে দেদার নাচ-গান। ভাবছেন জগদ্ধাত্রী পুজোর বিসর্জনের কথা বলছি, একেবারেই না। শোভাযাত্রা না শেষযাত্রা আয়োজন দেখলে বোঝা ভার। মারা গিয়েছেন এক বৃদ্ধ, তার শেষযাত্রায় কিনা বাজানো হল ডিজে? ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বীরভূম জেলার সিউড়িতে। তবে সনাতন ধর্মীবলম্বীরা আগে বৃদ্ধের শবদেহ দাহ করার জন্য খোল করতাল বাজিয়ে নিয়ে যেত শ্মশানঘাটে। খোল করতাল পরিবর্তিত হল কিনা ডিজে বক্সে! সূত্রের খবর শঙ্কর চরণ মাল। ওই এলাকারই বাসিন্দা ছিলেন শঙ্কর বাবু।

ইঞ্জিন ছাড়াই ১০ কিমি পথ ধেয়ে গেল মালগাড়ি!

প্রায় ৯২ বছর বয়সে বার্ধক্য জনিত রোগের কারণে মৃত্যু হয় শঙ্কর বাবুর। মৃত্যুর পর তার শবযাত্রা নিয়ে ডিজে বাজিয়ে শোভাযাত্রা করল শ্মশানযাত্রীরা? শুধু তাই নয়, তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে গাড়ির সঙ্গে নাচতেও দেখা গেল। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই বৃদ্ধ সরকারি কর্মী ছিলেন। একইসঙ্গে অন্যান্য বিভিন্ন কাজের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। বৃদ্ধের ১০ মেয়ে। তাঁরা প্রত্যেকেই বিয়ের পর ওই এলাকাযতেই বাড়ি তৈরি করে বসবাস করেন। কিছুদিন আগেই অশীতিপর বৃদ্ধকে অসুস্থ অবস্থায় সিউড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু শারীরিক অবস্থার তেমন কোনও পরিবর্তন না ঘটায়, চিকিৎসকরা রোগীকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

এরপরই বুধবার রাতে মৃত্যু হয় ওই বৃদ্ধের। কিন্তু এভাবে কেন ডিজে বক্স বাজিয়ে শব দাহ করতে নিয়ে যাওয়া হল? উত্তরে তার মেয়ে জামাই যা বলল তা শুনলে চোখ কপালে উঠবে আপনার। ওই বৃদ্ধের ১০ মেয়ের মোট ২৪ জন নাতিপুতি। তারা ঠিক করেছিল ডিজে বক্স বাজিয়ে দাদুকে নিয়ে যাবে শ্মশানঘাটে। প্রিয়জনের মৃত্যু তো শোকের, দুঃখের। সেখানে মৃত্যুতে আনন্দ? শোকের এমন অদ্ভুত বহিঃপ্রকাশ দেখে রীতিমতো চমকে গিয়েছে সকলে।