Date : 2019-12-15

ঝড় থেকে বাঁচাতে এবারও বুক চিতিয়ে লড়াই করল ‘সুন্দরী’রা…

দক্ষিণ ২৪পরগণা:- বাংলাদেশগামী ভয়ানক সব ঘূর্ণিঝড় প্রথম আঘাত হানে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে। সমুদ্রের সেই কোপ থেকে বাঁচতে বার বার বুক পেতে দেয় ম্যানগ্রোভ। নিঃশব্দে সামুদ্রিক ঝড়ের ঝাপট সহ্য করে। নামে “সুন্দরী”, সমুদ্রের বিধ্বংসী রূপের কাছে অসামান্য সাহসী। একের পর এক ঝড়ের সঙ্গে বুক চিতিয়ে লড়াই করে সুন্দরবন। কমে যায় সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি, ঝড়ের ২৫ ভাগও পৌঁছাতে পারে না শহরের দরজায়। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না। বুলবুল-এর ঝাপট সহ্য করতে একাই তছনছ হল সুন্দরবন। শনিবার রাতে স্থলভাগে প্রথম সাগরদ্বীপের উপর আছড়ে পড়ে প্রবল শক্তিশালী “বুলবুল”। সাগরদ্বীপ পুরোটাই ম্যানগ্রোভ অরণ্যে ঘেরা।

আবহাওয়াবিদদের কথায় সেখানে বাতাসের গতিবেগ ছিল সর্বোচ্চ প্রায় ১০০ থেকে ১২০ কিমি। সঙ্গে প্রবল সামুদ্রিক জলোচ্ছাস। আবহাওয়াবিদদের মত, ম্যানগ্রোভ অরণ্যই রাজ্যকে প্রবল ঝড়ের হাত থেকে বাঁচাতে ঢালের মতো দাঁড়িয়ে থেকেছে। গাছের ধাক্কায় বুলবুলের গতিবেগ প্রতি ঘন্টায় প্রায় ২০ কিমি করে কমে যায়। সঙ্গে সমুদ্রের জলোচ্ছাস পৌঁছাতে পারেনি ম্যানগ্রোভ পার করে।

রবিবার দুপুরের আগেই গতি পরিবর্তন করছে ‘বুলবুল’, জেনে নিন কোথায় আছড়ে পড়বে

শনিবার রাতে এটি আঘাত হানে বাংলাদেশেও। খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাটে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে, ঘূর্ণিঝড়টি সুন্দরবনের উপর দিয়ে আসায় গতি-শক্তি অনেকটাই কমে গেছে। শুধু তাই নয় ম্যানগ্রোভের কারণে রক্ষা পেয়েছে পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশও। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আবহাওয়াবিদ ড. আব্দুল মান্নান সাংবাদিকদের বলেন, চলতি বছর যতগুলো ঘূর্ণিঝড় হয়েছে, তার অধিকাংশই সুন্দরবনকেন্দ্রিক হওয়ায় রক্ষা পেয়েছে বাংলাদেশ।

এর মূল কারণ সুন্দরবন অতিক্রম করে ঘূর্ণিঝড় বেশিদূর এগোতে পারে না। তার আগেই ঘূর্ণিঝড়গুলো দুর্বল হয়ে যায়। কিন্তু একই ঘূর্ণিঝড় যদি বরিশালকেন্দ্রিক হতো তাহলে বাংলাদেশের জন্য বড় দুর্যোগ বয়ে আনতো। সুতরাং, একথা বলা অনস্বীকার্য যে সুন্দরবন ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তবে রাজ্যের উপকূলবর্তী অঞ্চল থেকে গা ঘেঁষে বাংলাদেশে প্রবেশ করে যায় ‘বুলবুল’। গাছের সঙ্গে লড়াই করে তখন অবশ্য বুলবুল শক্তি ক্ষুইয়েছে। এভাবে প্রতিটি ঝড় বার বার জানান দিয়ে যাচ্ছে ম্যানগ্রোভের গুরুত্ব অথচ সেই অরণ্যই বিপজ্জনক ভাবে ক্রমশ বিপন্ন।