Date : 2024-02-21

জন্মের ৩ ঘন্টার মধ্যে সন্তান হারা হয়েছেন, ২ মাস ধরে অন্যশিশুদের স্তন্যদান করছেন মা….

ওয়েব ডেস্ক:- সন্তান হারা মা একমাত্র বোঝেন সন্তান হারানোর কষ্ট। তেমনই একজন হতভাগ্য মা হলেন সিয়েরা স্ট্রংফিল্ড। সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার ৬ মাস আগেই ডাক্তার উত্তর দিয়েছিল বিরল রোগ নিয়ে পৃথিবীর আলো দেখতে চলেছে সে। যেমন কথা তেমনই হল, বহু চেষ্টা করে জন্মের পর মাত্র ৩ ঘন্টার বাঁচিয়ে রাখা সম্ভব হয়েছিল তার সন্তানকে। নিজের সন্তানকে হারানোর কথা জানতেন মা, তাই অন্যের সন্তানের জন্য কিছু করার ভাবনা ছিল তার।

সেই জন্যই নিজের ব্রস্টমিল্ক জমা করে মিল্ক ব্যাঙ্কে দান করলেন সিয়েরা স্ট্রংফিল্ড। এই নিয়ে একটি ফেসবুক পোস্ট করেন সিয়েরা, অল্প সময় ভাইরাল হতে শুরু করে সেই পোস্ট। সন্তান বিরল রোগ নিয়ে জন্মাচ্ছে জেনেও গর্ভপাত করার মতো অবস্থা তার ছিল না।

ইচ্ছে ছিল ৭০০ টি বিয়ের, পুলিশের জালে পড়ে শেষ করতে হল ২৮১ তে

চিকিৎসক বলে দিয়েছিলেন গর্ভস্থ সন্তান যে বিরল রোগ নিয়ে জন্মাচ্ছে তাকে কোন ভাবেই বাঁচানো সম্ভব নয়।

কানাডায় বিমান দুর্ঘটনা,প্রাণ গেল ৭ জনের

তার জন্য মাতৃসুখ ছিল মাত্র ৩ ঘন্টার মতো। স্বাদ করে ছেলের নাম রেখেছিলেন স্যামুয়েল। সন্তানের জন্য তার শরীরে যে মাতৃস্তন্য তৈরি হয়েছিল তার শরীরে তা অন্যান্য শিশুদের মধ্যে বিলিয়ে দেওয়ার জন্য ৬৩ দিন ধরে মাতৃদুগ্ধ জমা করে মিল্ক ব্যাঙ্কে দান করে সিয়েরা। সিয়েরার কথায়, “স্যামুয়েলকে হারাতে হবে আমি জানতাম। তাই তার আগেই আমি মনে মনে বলেছিলাম, আমার সন্তানকে বাঁচাতে না পারলেও, অন্য বাচ্চার জীবন বাঁচাব।”