Date : 2020-01-18

CAA-এর প্রতিবাদে বুদ্ধিজীবীদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে অপর্ণা, কৌশিক…

কলকাতা:- সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে অসমের বিক্ষোভের আঁচে জ্বলল বাংলা। প্রতিবাদের নামে হিংসা ছড়াতে ছড়াতে শুরু করে জেলায় জেলায়। হিংসার কড়া সমালোচনা করে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের পথ দেখাতে রাস্তায় নামলেন বুদ্ধিজীবীরা। রামলীলা ময়দান থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে মিছিল করেন সমাজের বিশিষ্টজনরা। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, সোহাগ সেন, ঋদ্ধি সেন, সুরঙ্গনা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্বরা। স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে মিছিলে পা মিলিয়েছেন অসংখ্য সাধারণ মানুষ। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরাও। নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে ছাত্র সমাজকে আন্দোলনের পথ দেখিয়েছে দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা।

NRC বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী আন্দোলন তৃতীয় দিনে, হাওড়া থেকে ডোরিনা পর্যন্ত পদযাত্রা

জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর পুলিশের বর্বরোচিত আক্রমণ করার পর সংক্রমক ব্যাধীর মতো দেশজুড়ে ছড়িয়েছে ছাত্র আন্দোলন।মিছিলে হাঁটতে হাঁটতেই অপর্ণা সেন জানান, CAA’র বিরোধিতা করছেন তিনি। এবং তাঁর মতো আরও অনেকে এই আইনের প্রতিবাদ জানাচ্ছে। সরকারের কাছে এই বার্তা পৌঁছনো দরকার। তাই আজ তাঁরা পথে নেমেছেন। তার উপর জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের উপর যে লাঠিচার্জ করেছে দিল্লি পুলিশ, তা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

২ জানুয়ারি থেকে পরিবর্তিত বাসরুটের ফাঁসে শহর!

তারও প্রতিবাদ জানাচ্ছেন তাঁরা। সুরঙ্গনা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এভাবে নাগরিকত্ব প্রমাণ করা যুক্তিহীন। এমন অনেক মানুষ রয়েছেন, যাঁরা দিন আনে দিন খায়। কোনওমতে মাথা গুঁজে থাকে। তাঁদের যদি বলা হয়, ২০ বছরের ডক্যুমেন্ট দেখাতে, তাহলে তারা দেখাবে কী করে?” প্রসঙ্গত, এদিন বেঙ্গালুরুতে বিক্ষোভ দেখাতে গিয়ে আটক হন ইতিহাসবিদ্ রামচন্দ্র গুহ গ্রেফতার হন। ১৪৪ ধারা জারি করা হয় রাজধানীতে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা।