Date : 2024-02-21

বর্ষশেষের রাতে বাজানো যাবে না ডিজে, বন্ধ আতসবাজি….

ওয়েব ডেস্ক:- এসে গেল বড়দিন। অন্যান্য দেশের মতো সেই উপলক্ষ্যে সেজে উঠেছে ঢাকা শহর। অন্যদিকে বাংলাদেশের রাজধানীতে শুরু হয়েছে আওয়ামি লিগের ২১ তম জাতীয় সম্মেলন। সব মিলিয়ে ঢাকা শহর মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার চাদরে। যেকোন মুহুর্তে দেশের মধ্যে হয়ে যেতে পারে বড়সড় নাশকতা। সেই আশঙ্কায় সেদেশের গোয়েন্দা দফতরের তরফে সুরক্ষা বাড়ানোর নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

ট্রাম্পকে ইমপিচ করল মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিটি গির্জায় সাদা পোশাকের পর্যাপ্ত পুলিশকর্মী মোতায়েন করা হবে। প্রতিটি চার্চে মূল দরজা দিয়ে দর্শনার্থীদের ঢুকতে হবে। মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে ও প্রবেশের আগে শরীর তল্লাশি করা হবে। অনুষ্ঠানস্থলে ডগ স্কোয়াড মোতায়েন করা হবে। নিরাপত্তায় থাকবে ফায়ার সার্ভিস ও অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা। গির্জার এলাকাগুলিতে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পরিষেবা থাকবে। গির্জার আশপাশে কোনও দোকান বা হকার বসতে দেওয়া হবে না।

হাওড়ায় প্যান্টোগ্রাফ ভেঙে বন্ধ ট্রেন চলাচল

কোনও প্রকার ব্যাগ, ট্রলিব্যাগ ও ব্যাকপ্যাক নিয়ে চার্চে আসা যাবে না। এদিকে বর্ষশেষের উৎসবে গা ভাসাতে তৈরি বাংলাদেশ। থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষ্যে বাংলাদেশে নিষিদ্ধ হয়েছে আতসবাজি। বাজানো যাবে না তারস্বরে মাইক বা ডিজে। এমনকি পরিচয় পত্র ছাড়া কাউকে ঘুরে বেড়াতে দেখলে তাকে গ্রেফতার করবে পুলিশ। উৎসবের দিনে যে কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সামলাতে সজাগ পুলিশ।