Date : 2024-05-26

স্টিং অপারেশনের ভিডিও চাই, এবার পাল্টা দিলেন শমীক

সন্দেশখালীর নিয়ে শনিবার সারাদিন ধরে সরগরম রাজ্য রাজনীতি সন্ধ্যেবেলায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রেস করে স্পষ্ট বললেন এই গোটা ঘটনাটা পুরোটাই বিজেপি নেতাদের পরিকল্পিতভাবে করা আর এবার সেই স্টিং অপারেশনের ভিডিও চাইলেন বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য

সায়ন্তিকা ব্যানার্জি, সাংবাদিক: শনিবার ফের সারাদিন ধরে খবরের শিরোনামে সন্দেশখালি। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন সন্দেশখালির ঘটনা বিজেপি নেতাদের পরিকল্পিতভাবে ঘটানো। একটি ভিডিও দেখিয়ে তিনি স্পষ্ট জানালেন সন্দেশখালিতে কোন ধর্ষণ হয়নি আর সেই সাংবাদিক সম্মেলন শেষ হওয়ার পরেই বিজেপির পক্ষ থেকে শমীক ভট্টাচার্য দাবি করলেন অপারেশনের ভিডিও চাই। বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য সাংবাদিক বৈঠকে দাবি করেন, সন্দেশখালির আন্দোলনের সঙ্গে গঙ্গাধরের কোনও যোগ নেই। তারা চান, সন্দেশখালি নিয়ে যে ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে, তার সিবিআই তদন্ত হোক।

আরও পড়ুন : – সন্দেশখালির ঘটনা নিয়ে “বিগ এক্সপোজ” অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

শমীক স্পষ্ট জানান, ভিডিও সম্পূর্ণ ভুয়ো। বিরোধী দলনেতাকে কালিমালিপ্ত করতে এটা ঘটানো হয়েছে। এই ঘটনার মধ্যে দিয়ে তৃণমূল আসলে সন্দেশখালির নির্যাতিতাদেরই অপমান করল। তবে এখানেই বিজেপি বিষয়টা ছেড়ে দেবে না সিবিআই তদন্তের দাবিও করলেন তিনি

বিজেপির সাফ দাবি তৃণমূল সব কিছুতেই সাজানো ঘটনা দেখে। সন্দেশখালির মহিলারা এসে কোর্টে তাঁদের উপর নির্যাতনের অভিযোগ করেছিলেন। রেখা পাত্রের অভিযোগের ভিত্তিতে শিবপ্রসাদ হাজরার বিরুদ্ধে ১৬৪ ধারা দেওয়া হয়েছে। সন্দেশখালির ঘটনাকে কোনও ভাবেই তৃণমূল আড়াল করতে পারবে না।

উল্লেখ্য শনিবার সকালে ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরই যেন এই ভোটের আবহে এক নয়া ধারালো অস্ত্র চলে আসে তৃণমূলের হাতে শুরু হয় লাগাতার আক্রমণ। দলের অফিশিয়াল এক্স হ্যান্ডল থেকে একটি পোস্ট করে লেখা হয় ‘‘দেখা যাচ্ছে বাংলাকে অসম্মানিত করার জন্য চেষ্টার কোনও কসুরই রাখেনি বিজেপি। গণধর্ষণের অভিযোগ থেকে শুরু করে অস্ত্র বাজেয়াপ্ত, সমস্ত কিছুই সাজিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এই বাংলা-বিরোধীদের ক্ষমা করবেন না বাংলার মা-বোনেরা। এর প্রতিশোধ নেবেন তারা।