Date : 2024-06-23

ফের ইতিহাস সৃষ্টির পথে ইসরো

ফের ইতিহাস সৃষ্টির পথে ইসরো। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে নেমে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে চন্দ্রযান। এবার আরও একবার অভিযান মঙ্গলে।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক ঃ ফের ইতিহাস সৃষ্টির পথে ইসরো। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে নেমে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে চন্দ্রযান। এবার আরও একবার অভিযান মঙ্গলে। এর আগে মঙ্গলযান মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশ করে নজির গড়েছিল। এবার আরো উচ্চাকাঙ্খী ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা। এবার তারা মঙ্গলযান ২ পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে। তাই নিয়ে তৈরি হচ্ছে নীল নকশা। লালগ্রহের রুক্ষ মাটিতে রোভার ও হেলিকপ্টার নামানো। সফল হলে চিন ও আমেরিকার পর তৃতীয় দেশ হিসেবে এই কৃতিত্ব অর্জন করবে ভারত। সেই স্বপ্ন সত্যি করতে এখন মরিয়া ইসরোর বিজ্ঞানীরা। জানা গেছে ইসরোর সবচেয়ে শক্তিশালী রকেট এলভিএম৩-তেই মঙ্গলযান-২ রওনা দেবে মঙ্গলের পথে। কেবল মঙ্গলের মাটিতে নামাই নয়, ইসরোর রোভার যেভাবে সেখানে নামবে বলে পরিকল্পনা করা হচ্ছে তাও অভিনব। সাধারণ এয়ারব্যাগ ও র‍্যাম্পের সাহায্যেই এই ধরনের যানকে নামানো হয়। কিন্তু এবার ইসরো ব্যবহার করবে স্কাই ক্রেন। ইসরোর বিজ্ঞানীদের মতে এই পদ্ধতিতে অবতরণ হবে আরও নিরাপদ।

নাসার পারসেভারেন্স রোভারের অবতরণকে মাথায় রেখেই এই পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এছাড়াও আলাদা করে সকলের নজরে থাকবে মঙ্গলে হেলিকপ্টার ওড়ানোর দিকেও। এখন প্রশ্ন কি লক্ষ্য এই মিশনের? ইসরোর বিজ্ঞানীদের মতে শুধুমাত্র বৈজ্ঞানিক তথ্য সংগ্রহই নয় লাল গ্রহটিতে আরো বড় অভিযান যাতে করা হয় সেদিকে লক্ষ্য তাদের। উল্লেখ্য ২০১৩ সালে মঙ্গলে যান পাঠিয়েছিল ইসরো। সেই সাফল্যে বিশ্বজুড়ে ইসরো প্রশংসিত হয়েছিল। তাই এবার মঙ্গলযান২ দিয়ে আরও বড় সাফল্য পেতে চায় ইসরো। চন্দ্রযানের সাফল্য রাতারাতি ভারতকে মহাকাশে চিন, রাশিয়া ও আমেরিকার পাশে বসিয়ে দিয়েছে। তাই মঙ্গলযান২ এর দ্বারা ইসরো কতটা সফল হতে পারে সেদিকে অবশ্যই নজর রয়েছে এই সারা বিশ্বের।

আরও পড়ুন :  রেশন দুর্নীতির সঙ্গে সমবায় দুর্নীতির যোগ? ডিজিকে সিট গঠনের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট