Date : 2024-05-26

প্রকাশ্যে রাজভবনের সিসিটিভি ফুটেজ। কিন্তু কি আছে তাতে !

রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রাজ্যপাল। উল্টে তিনি এই ঘটনায় রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনেছেন। আবার সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ওইদিনের সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে আনার দাবি জানায় তৃণমূল। বৃহস্পতিবার সেই ফুটেজ জনসমক্ষে আনলো রাজভবন।

সঞ্জু সুর, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ গত ২ মে সন্ধ্যায় হঠাৎ ই এক নজিরবিহীন অভিযোগকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায় রাজ্য জুড়ে। ওইদিন রাজভবনে কর্মরত (অস্থায়ী) একজন মহিলা হেয়ার স্ট্রিট থানায় অভিযোগ করেন রাজ্যের বর্তমান রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস এর বিরুদ্ধে। লিখিত অভিযোগে ওই মহিলা জানান রাজ্যপাল বোস তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছেন এবং তাকে অমর্যাদাকর প্রস্তাব দিয়েছেন। একবার নয় দুই দুই বার রাজ্যপাল এমন চেষ্টা করেছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

অভিযোগকারীনির এই অভিযোগ সামনে আসার পর একপ্রকার ঢি ঢি পড়ে যায়। রাজ্যপালকে কেন্দ্র করে এতবড় অভিযোগ অন্ততঃ এরাজ্যে এর আগে কখনও ওঠেনি। এমন অভিযোগ সামনে আসার পর থেকেই রাজ্যপালকে উদ্দেশ্য করে একের পর এক তৃণমূল নেতা আক্রমণ হানতে শুরু করেন। রাজভবন‌ ও প্রত্যুত্তর দিতে দেরি করে নি। সেদিন (০২/০৫/২৪) রাতেই রাজভবন থেকে বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয় ভোট আবহে রাজনীতি করার জন্য‌ই এমন অভিযোগ আনা হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অবশ্য সিসিটিভি প্রকাশ্যে আনার দাবি জানানো হয়। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপালকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “যদি আপনি নির্দোষ হয়ে থাকেন তাহলে কেন ওইদিনের সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে আনছেন না?” একসপ্তাহ পর বৃহস্পতিবার সেই ফুটেজ প্রকাশ্যে আনলো রাজভবন।

এদিন বেলা বারোটা নাগাদ রাজভবনের মার্বেল হলে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সামনে ও অল্প কিছু মানুষের সামনে সেদিনকার ফুটেজ দেখানো হলো। যে ফুটেজ সামনে নিয়ে আসা হয়েছে সেটি মূলত রাজভবনের মেইন গেট বা উত্তর গেট এর সামনের ভিডিও। প্রায় ১ ঘন্টা ৩৫ মিনিট ২০ সেকেন্ডের ভিডিও তে শুধু এটুকুই দেখা গিয়েছে যে অভিযোগকারী মহিলা কিছুটা শশব্যস্ত হয়ে রাজভবনের পুলিশ আউট পোষ্টে প্রবেশ করছেন। সময় তখন ২ তারিখ বিকাল ৫ টা বেজে ৩২ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড। প্রায় মিনিট সাতেক ওসির ঘরে থাকার পর ঠিক ৫ টা ৪০ নাগাদ তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে পাশের একটি রুমে প্রবেশ করেন। বাকি সময়টা পুলিশের কিছু কর্মব্যস্ততার ছবি ধরা পড়েছে। তবে সেই কর্মব্যস্ততা ছিলো সম্ভবত প্রধানমন্ত্রীর জন্য। কারণ তার কিছু পরেই সেই রাতেই রাজভবনে রাত্রিবাস করার জন্য পৌঁছে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিন নিজেকে অধ্যাপক বলে পরিচয় দেওয়া এক ব্যক্তি রাজভবনে ওই সিসিটিভি ফুটেজ দেখার পর দাবি করেন মেয়েটি যে অভিযোগ করেছে আমি তার সঙ্গে সহমত পোষণ করি না। তবে মেয়েটি সত্যি বলছে না মিথ্যা বলছে তা এদিনের প্রকাশ করা ফুটেজ থেকে কোনো মতেই স্থির করা সম্ভব নয় বলেই মত অনেকের।

আরও পড়ুন : ৪০ ঘন্টায় নিকেশ “ওয়ান্টেড” জঙ্গি সহ ৩