Date : 2024-06-23

বৃহস্পতিবার সমাধিস্থ ইরানের প্রেসিডেন্ট

রাইসির মৃত্যুতে শোকপর্ব শুরু হয়েছে ইরানে, যা চলবে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত। প্রথম ভাগ শুরু হয়েছে তাবরিজ শহর থেকে। তাঁর শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চলেছেন ভারতের উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়। বৃহস্পতিবার তেহরানে আর এক বার শেষকৃত্য অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। আগামী শুক্রবার ইরানে শোকপর্বের শেষ দিন। ঠিক তার আগের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্টের নিজের শহর মাশাদে সমাধিস্থ করা হবে রাইসিকে।

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক- রবিবার কপ্টার দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ইরানের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম রাইসির। তিনটি হেলিকপ্টারের একটি কনভয় নিয়ে যাচ্ছিলেন ইরানি প্রেসিডেন্ট। ইরানের প্রতিবেশি দেশ, আজারবাইজানে এই তিন কপ্টার একটি দুর্ঘটনার মুখে পড়ে। শুধু প্রেসিডেন্ট একা নন, সঙ্গে ছিলেন ইরানের বিদেশমন্ত্রীও। প্রেসিডেন্টের কপ্টারে দুর্ঘটনার খবর পেয়েই তাদের সহায়তা করে রাশিয়া। রাশিয়ার তরফে ২টি বিমান, হেলিকপ্টার ও ৫০টি উদ্ধারকারী দল পাঠানো হয় ঘটনাস্থলে। ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি, বিদেশমন্ত্রী সহ হেলিকপ্টারে যে ৯ জন ছিলেন, সকলেরই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়। রাইসির মৃত্যুর পর ইরানের প্রেসিডেন্ট কে হবে তা নিয়ে শুরু হয় জল্পনা! যদিও শোনা যাচ্ছে, ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুর পর গদিতে বসবেন প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট মহম্মদ মোখবের। তবে ইরানের সুপ্রিম লিডার আয়াতোল্লাহ আলি খোমেইনি অনুমতি দিলে তবেই প্রেসিডেন্ট পদে বসতে পারবেন মহম্মদ মোখবের। প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। এমনকী ভারত সরকার রাষ্ট্রীয় শোক পালন করে। এমতাবস্থায় ইরানবাসীকে দেখা যায় প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে জয়োল্লাস করতে। যা নিয়ে রীতিমতো বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

যদিও এনিয়ে সাফাই দিতে ছাড়েনি ইরানবাসী। ইরানের বাক-স্বাধীনতা চূর্ণ করেছিলেন রাইসি। মহিলাদের পোশাক নিয়ে “হিজাব ও সতীত্ব আইন” কঠোর করেছিলেন তিনি। “তেহরানের কসাই” নামেও পরিচিত ছিলেন ইব্রাহিম রাইসি। সোমবার কপ্টার দুর্ঘটনা হলেও প্রেসিডেন্টের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হয়েছে মঙ্গলবার। ওই দিনই রাতের দিকে প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ও বিদেশমন্ত্রীর দেহসহ সব কটি কফিন ইরানের রাজধানী তেহরানের মেহরাবাদ বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয়। রাইসির মৃত্যুতে শোকপর্ব শুরু হয়েছে ইরানে, যা চলবে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত। ইরান সরকারের তরফে জানানো হয়েছে টানা কয়েকদিন চলবে রাষ্ট্রপতির শেষকৃত্যর অনুষ্ঠান। যার প্রথম ভাগ শুরু হয়েছে তাবরিজ শহর থেকে। তাঁর শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চলেছেন ভারতের উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়। তিনি তেহরান যাচ্ছেন বলে বিদেশমন্ত্রক সূত্রে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার তেহরানে আর এক বার শেষকৃত্য অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। আগামী শুক্রবার ইরানে শোকপর্বের শেষ দিন। ঠিক তার আগের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্টের নিজের শহর মাশাদে সমাহিত করা হবে রাইসিকে। কী ভাবে রাইসিদের কপ্টার দুর্ঘটনায় পড়ল, তার তদন্ত চলছে বলে জানাচ্ছে ইরান সরকার। তবে এ নিয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌছতে পারেনি প্রশাসন। আগামী ২৮ জুন পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন : ফের ইতিহাস সৃষ্টির পথে ইসরো