Date : 2024-05-26

গাঁজা নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত পাকিস্তানের

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক: বেহাল অর্থনীতিতে জর্জরিত পাকিস্তান। দেশের কর বাড়িয়ে দেওয়া থেকে শুরু করে দৈনন্দিনের বিদ্যুৎ-জলের খরচ বাড়িয়ে দিয়ে, এমনকী সরকারি কর্মচারীদের বেতন কমিয়ে দিয়েও অর্থনীতির উন্নতি করা সম্ভব হয়নি। তাই দেশের অর্থনীতির পরিস্থিতি বদলাতে বড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে পাকিস্তান। এই সিদ্ধান্তের কথা আগে কেউ ভাবতে পারেনি। ভারতের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান গাঁজাকে আইনত বৈধ করতে চলেছে। শুধু তাই নয়, বিদেশেও গাঁজা রফতানি করার পরিকল্পনা নিয়েছে পাকিস্তান। দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতির হাল ফেরাতে আইন পাশ করে গাঁজাকে বৈধ করছে পাকিস্তান। তবে নেশা নয়, চিকিৎসার উদ্দেশ্যেই ব্যবহৃত হবে গাঁজা। পাশাপাশি বিদেশেও গাঁজা রফতানির করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে পাকিস্তান সরকার একটি অর্ডিন্যান্স পাশ করে। যেখানে গাঁজা উৎপাদন ও ব্যবহারে নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি নিয়ামক কর্তৃপক্ষ তৈরি করে। ক্যানাবিস কন্ট্রোল অ্যান্ড রেগুলেটরি অথারিটি নামে ওই নিয়ামক কর্তৃপক্ষ দেশে গাঁজার চাষ, উৎপাদন, পরিশোধন ও বিক্রয়ের বিষয়টি দেখাশোনা করবে। মূলত চিকিৎসা ও বাণিজ্যিক কারণে গাঁজা ব্যবহার করা হবে। পাশাপাশি অন্যান্য দেশে রফতানির মাধ্যমে বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে আসা ও অন্তর্দেশীয় বিক্রি বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। পাকিস্তানের গাঁজার এই নিয়ামক সংস্থায় বিভিন্ন সরকারি বিভাগের কর্তাদের রাখা হবে। গোয়েন্দা বিভাগের সদস্যরাও থাকবেন এই সংস্থায়। ২০২০ সালে ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন এই কমিটি গঠনের সুপারিশ করেন, সেই পরিকল্পনা বাতিল হয়ে যায়। এখন ফের সেই পরিকল্পনাকে মান্যতা দিয়ে গাঁজাকে আইনত বৈধ করার জন্য তৎপর পাকিস্তান।

বর্তমানে পাকিস্তানের মূল্যবৃদ্ধির হার দাঁড়িয়েছে ২৫ শতাংশ। আর্থিক বৃদ্ধির হার কমে ১.৯ শতাংশে নেমেছে।

আরও পড়ুন : মনোনয়ন জমা দিল বাম জোটের পাঁচ প্রার্থী