Date : 2019-08-18

হাতির মাংসে দেদার ফুর্তিতে বনভোজন, নীরব দর্শক প্রশাসন….

ওয়েব ডেস্ক: ফের পশুদের প্রতি নারকীয় ব্যবহারের নজির রাখল নাগাল্যান্ড। জঙ্গলের মধ্যে একটি পূর্ণ বয়স্ক হাতিকে গুলি করে হত্যা করে তার মাংস দিয়ে মহানন্দে চলল ভুরিভোজ। ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন পশুপ্রেমীরা।

জানা গিয়ে ঘটনার সূত্রপাত বুধবার, নাগাল্যান্ডের জুনেবটো জেলায় লিটামি গ্রামের পাশে একটি জঙ্গলে হাতিটিকে হত্যা করা হয়।

তারপর হাতিটির ছাল ছাড়িয়ে পিস পিস করে গ্রামবাসীদের মধ্যে মাংস বিতরণ করা হয়।

জঙ্গলের মধ্যেই সেই মাংস রান্না করে উল্লাসে চলে বনভোজন। হাতিটির চামড়া ছাড়ানো ও মাংস বিলি করার ঘটনা রীতিমতো ক্যামেরাবন্দি করে পোস্ট করা হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। মুহূর্তে তা ভইরাল হয়ে যায়। একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠনের তরফে ঘটনার তদন্তের দাবী জানানো হলেও রাজ্যের দফতর মুখে কুলুপ এঁটে আছে।

গল্পের গরু এবার খেলল ফুটবল, দেখুন ভিডিও

একই ঘটনার সাক্ষী ছিল মিজোরাম। কিছুদিন আগে সেখানেও হাতির মাংস খাওয়ার ঘটনায় তুমুল বিতর্ক দানা বাঁধে। জানা যায়, কানহমুন ফরেস্ট রেঞ্জে কাজের জন্য অসম থেকে লক্ষ্মী নামের একটি হাতিকে আনে মিজোরামের বনদপ্তর।

হৃদরোগে ৪৭ বছরের ওই হাতির মৃত্যুর পর সেটির মাংস নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নেয় গ্রামবাসীরা। হাতির সৎকার না করে সেই মাংস বিলি করা হয় গ্রামবাসীদের মধ্যে। এর ফলে তীব্র সমালোচনাও হয়।

বন্যার জলে ভাসছে কাজিরাঙা, নিরাপদ আস্তানার খোঁজে বিপন্ন পশুরা

কিন্তু ফের হাতির মাংস খাওয়ার ঘটনা পাশের রাজ্যে নাগাল্যান্ডে ঘটলেও তাই নিয়ে নীরব প্রশাসন। উল্লেখ্য, উত্তর-পূর্ব ভারত জুড়ে বন্যপ্রাণ বিপন্ন এমনই দাবী তুলেছে অনেক পশুপ্রেমী সংস্থা। সেখানে তৈরি হয়েছে চোরা শিকারীদের গ্রুপ। পুলিশ চোখে ধুলো দিয়ে বন্যপ্রাণ ধ্বংস করেই চলেছে তারা।