Date : 2019-08-18

শ্যুটিং-এর নামে থাইল্যান্ডে গিয়ে নিগ্রহ কলকাতার তরুণী…

কলকাতা: শ্যুটিং-এর জন্য থাইল্যান্ডে নিয়ে গিয়ে নিগ্রহ করা হল কলকাতার তরুণীকে। শেষে পিএমও-এর দফতরে যোগাযোগ করে সমাধান করা হল সমস্যার। পুলিশ সূত্রের খবর, মুম্বইয়ের একটি ট্রাভেল এজেন্সির প্রমোশানাল শ্যুটের জন্য গত ১৩ জুলাই শ্যুটিং টিমের সঙ্গে থাইল্যান্ড গিয়েছিলেন কলকাতার বেনিয়াপুকুরের তরুণী। কিন্তু থাইল্যান্ড পৌঁছানো মাত্রই ক্রমশ রূপ বদলাতে শুরু করে ট্রাভেল এজেন্সির কয়েকজন কর্মী ও পরিচালক।

আগ্নেয়াস্ত্রের ভয় দেখিয়ে যৌন নির্যাতন ছাত্রীদের, অভিযুক্ত শিক্ষক

বিপদ বুঝে ওই তরুণী শ্যুটিং শেষ না করেই ফিরে আসতে চান কলকাতায়। অভিযোগ, তাকে ছাড়া হয়নি, ফিরে আসার চেষ্টা বুঝতে পারায় ওই তরুণীর উপর শুরু হয় অকথ্য নির্যাতন। এমনকি ফোনে ওই সংস্থা তরুণীর পরিবারকে ব্ল্যাকমেল করতে শুরু করে ২ লক্ষ টাকা চেয়ে। বিপদ বুঝে সরাসরি পিএমও-র দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করে তরুণীর পরিবার। তারপরেই থাইল্যান্ডের ভারতীয় দূতাবাস খবর পাঠানো হয় এবং নড়চড়ে বসে তারা।

জিডি বিড়লার ছাত্রীর আত্মহত্যার প্লট কী ওয়েব সিরিজ লুকিয়ে!

ঘটনারক কথা জানতে পেরে তরুণীকে উদ্ধার করে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয় কলকাতায়। ইতিমধ্যে বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছে তরুণীর পরিবারের পক্ষ থেকে। এজেন্সির দু’জন মহিলা এবং এক একজন প্রবাসী কর্তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় রুজু হয়েছে মামলাও। পুলিশ জানিয়েছে, ওই দুই মহিলার মধ্যে একজনের বাড়ি কলকাতায়, আর একজনের বাড়ি দিল্লিতে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শহুরু করেছে পুলিশ।