Date : 2021-07-31

এক কন্যাসন্তানের দাবীদার তিন বাবা! আতান্তরে পড়ল হাসপাতাল…

ওয়েব ডেস্ক: সদ্যজাত শিশুকন্যার দাবি করে হাসপাতালে উপস্থিত ৩ পিতা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ কলকাতার গাঙ্গুলীবাগানের একটি নামী বেসরকারি হাসপাতালে ধুন্ধুমার কাণ্ড। বাধ্য হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন তারা। এককথায় এমন বেনজির ঘটনার সম্মুখীন আগে কোন হাসপাতালই হয়নি। এই বিষয় এখনও পর্যন্ত নীবর শিশু কন্যার মা! শনিবার উত্তরপাড়ার বাসিন্দা ওই গর্ভবতী মহিলাকে হাসপাতালে স্বামী পরিচয় দিয়ে ভর্তি করে যান দীপঙ্কর পাল নামে এক ব্যক্তি। রবিবার সেই মহিলা একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেয়। এরপরেই গোল বাঁধে।

রবিবার বিকেলে নিউটাউনের ভিস্তা গার্ডেনের বাসিন্দা হর্ষ ছেত্রী এসে দাবি করেন ওই সন্তান তার। হোয়াটস অ্যাপে সপ্নার স্টেটাস দেখেই নাকি হাসপাতালে হাজির হন হর্ষ ছেত্রী। এই খবর শুনেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যে ঘরে কন্যা সন্তান ও তার মা আছে সেই ঘরে নিরাপত্তা বাড়িয়ে দেন।

আরও পড়ুন: আগ্নেয়াস্ত্রের ভয় দেখিয়ে যৌন নির্যাতন ছাত্রীদের, অভিযুক্ত শিক্ষক

খবর দেওয়া হয় পুলিশে। নেতাজী নগর থানায় গিয়ে পুলিশে অভিযোগ করেন হর্ষ ছেত্রী। তিনি হাসপাতান কর্তৃপক্ষ এবং ওই মহিলার ম্যারেজ সার্টিফিকেটও দেখান। দাবি করেন ওই কন্যাসন্তান তার ও জন্মদাত্রী মা তার স্ত্রী। এর ফলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আরও আতান্তরে পরেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঘটনা জানানি হওয়ার পর হাসপাতালে কাউকেই ঢুকতে দেননি। কিন্তু গল্পের শেষ এখানেই নয়, এই ঘটনার আরও কিছুক্ষণ পর হাসপাতালে এসে হাজির হন প্রদীপ রায় নামে এক ব্যক্তি। তিনিও দাবী করেন ভূমিষ্ঠ হওয়া কন্যাসন্তানের পিতা তিনি। এই ঘটনার পর চোক্ষু চরকগাছ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

আরও পড়ুন: একসঙ্গে ১৭টি বাচ্চার জন্ম, ভাইরাল মার্কিন মহিলার ছবি

হাসপাতালে দাঁড়িয়ে এরা তিনজনই বলে গেছেন মঙ্গলবার উপযুক্ত প্রামাণ সংগ্রহ করে তারা উপস্থিত হবেন হাসপাতালে। এদিকে সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার ফলে ওই মহিলা দুর্বল থাকায় এখনও পর্যন্ত তার সঙ্গে কথা বলতে পারেনি পুলিশ। তিনি সুস্থ হয়ে উঠলেই ঘটনার তদন্ত করবে পুলিশ এমনটাই জানানো হয়েছে। এই মুহুর্তে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে রাখা হয়েছে ওই মহিলাকে।